রামপুরায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু: বাসের সুপার ভাইজার-হেলপার রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৫৪

রাজধানীর রামপুরায় বাসের চাপায় একরামুন্নেসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী মাইনুদ্দিন ইসলাম নিহতের মামলায় অনাবিল পরিবহনের সুপার ভাইজার গোলাম রাব্বী ওরফে বিন রহমান ও হেলপার চাঁন মিয়ার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিম এ রিমান্ড আদেশ দেন।

আজ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রামপুরা থানার সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মোহাম্মদ আল আমিন মীর সড়ক পরিবহন আইনে করা মামলায় দুই আসামিকে আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। পরে বিচারক ওই আদেশ দেন।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, আসামিরা ঘাতক বাস অনাবিল সুপার ঢাকা মেট্রো ব-১৫-০৮৫৬ গাড়ির সুপার ভাইজার ও হেলপার। ওই গাড়ির ড্রাইভার আসামি মো. সোহেল অজ্ঞান অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গত ২৯ নভেম্বর রাত ১১ টার দিকে মাইনুদ্দিন পূর্ব রামপুরাস্থ মেইন রাস্তা পারাপারের সময় বাড্ডার দিক থেকে মালিবাগের দিকে যাওয়া এই বাসটি দ্রুত ও বেপরোয়া গতিতে চালিয়ে তাকে ধাক্কা দেয়। এরপর তার ওপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে চলে যায়। এতে মাইনুদ্দিন ঘটনাস্থলেই মারা। এঘটনায় বিশাল অরাজকতার সৃষ্টি হয়। উত্তেজিত জনতা অসংখ্য গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেন। দেশব্যাপী বিষয়টি নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করে তথ্য সংগ্রহ করার জন্য সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুরের প্রার্থনা করা প্রয়োজন। রিমান্ড শুনানিকালে আসামিদের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

এদিকে এ ঘটনায় বাসে অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুরের ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় একটি মামলায় শহীদ বেপারী নামে এক আসামির এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন একই আদালত।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রামপুরা থানার সাব-ইন্সপেক্টর তৌহিদুল ইসলাম এ আসামির সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

গত ২৯ নভেম্বর রাত ১১টার দিকে রাজধানীর রামপুরা এলাকায় অনাবিল সুপার পরিবহনের বাসের চাপায় মাইনুদ্দিন নিহত হয়। এ ঘটনায় রাতে সড়ক অবরোধ করে উত্তেজিত জনতা। এ সময় ঘাতক বাসসহ আটটি বাসে আগুন দেওয়া হয়। ভাঙচুর করা হয় আরও চারটি বাস। মাইনুদ্দিন নিহতের ঘটনায় তার মা রাশিদা বেগম সড়ক দুর্ঘটনা আইনে মামলা করেন। একই ঘটনায় রামপুরা এলাকায় ৮টি বাসে আগুন ও চারটিতে ভাঙচুর করায় পৃথক একটি মামলা করে পুলিশ। মামলায় অজ্ঞাত পাঁচ শতাধিককে আসামি করা হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/০১ডিসেম্বর/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :