‘দেশের সিংহভাগ অর্জনের পেছনে ঢাবির অবদান অনন্য’

ঢাবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২২:২১

ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতা অর্জন থেকে আজ পর্যন্ত বাংলাদেশের যা কিছু অর্জিত হয়েছে সেটার পেছনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনন্য অবদান আছে বলে মনে করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

শনিবার বিকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের চতুর্থ দিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় তিনি এই মন্তব্য করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শাহাদত আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সব আন্দোলনের প্রাণকেন্দ্র। ৫২'র ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতা অর্জন থেকে আজ পর্যন্ত যা কিছু বাংলাদেশের অর্জন হয়েছে তার পিছনে এই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনন্য অবদান রয়েছে। এখনকার তরুণ প্রজন্ম যারা দেশের জন্য অবদান রাখছেন তাদের সিংহভাগই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এজন্যই আমি গর্ববোধ করি। বিগত একশ' বছরে আমরা কী করেছি, তার চেয়ে বড় হলো আগামী একশ বছর কী করবো তার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করা প্রয়োজন। ভবিষ্যতেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে নিজেদের কর্মগুণে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ও ঐতিহ্য ধরে রাখবেন বলে তিনি প্রত্যাশা করেন।

সাবেক কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা সর্বদা মুক্তচিন্তা ও মুক্তিবুদ্ধির চর্চা করে নিজেদের আলোকিত করেছেন এবং সমাজ, দেশ ও জাতিকে আলোকিত করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও অনাগত শিক্ষার্থীদের এই আলোয় আলোকিত হওয়ার জন্য এসব চর্চা অক্ষুণ্ন রাখতে হবে। জ্ঞান-বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রার সাথে যোগসূত্র রেখে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়কে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে আমি গর্ব অনুভব করি। ৬০'এর দশকে এই ক্যাম্পাসে এসে আমি বঙ্গবন্ধুকে চিনেছি, বঙ্গবন্ধুর আন্দোলন-সংগ্রাম-নেতৃত্ব দেখেছি এবং বাংলাদেশকে চিনেছি। প্রত্যেকটি আন্দোলন-সংগ্রামে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সম্মুখ সারিতে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। আগামীতেও তারা দেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবেন।

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মতো উপস্থিত ছিলেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান এবং প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূঁইয়াসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যবৃন্দ, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

(ঢাকাটাইমস/০৪ডিসেম্বর/আরএল/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিক্ষা এর সর্বশেষ

শাবি উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও, বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন

কুবিতে রেজিস্ট্রার অপসারণ চেয়ে অবস্থান কর্মসূচি

শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের প্রতি সংহতি জানিয়ে ঢাবিতে সমাবেশ

বাংলা একাডেমি পুরস্কার পেলেন ১৫ যশস্বী, জানুন তাদের পরিচয়

জ্ঞান-বিজ্ঞানের অনুসন্ধানের প্রয়াসই সমাজের বড় শক্তি: ড. মশিউর

ঢাবিতে চলমান পরীক্ষাগুলো সশরীরে নেওয়ার সিদ্ধান্ত

একুশে ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারে যেতে লাগবে টিকা সনদ

জমি উদ্ধারে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি ঢাকা আলিয়ার সাবেক শিক্ষার্থীদের

সংসদে শাবি ভিসির কড়া সমালোচনা, অপসারণ চাইলেন জাপার এমপিরা

দুপুরে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে ফের আলোচনায় বসবেন শাবি শিক্ষার্থীরা

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :