অন্দর সাজাতে ভোলা মৃত্তিকার জুড়ি নেই

শেখ সাইফ, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৮ জুন ২০২২, ২২:০১ | প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০২২, ২১:৪৫

আবহমান কাল থেকেই আমাদের সংস্কৃতিতে পরিবেশ বান্ধব মাটির তৈরি নানান তৈজসপত্র ব্যবহৃত হয়ে আসছে। তবে আধুনিকতার ছোঁয়ায় স্বাস্থের জন্য উপকারি মাটির তৈরি তৈজসপত্রের ব্যবহার অনেক কমে এসেছে। কালের বিবর্তনে তার জায়গা নিয়েছে চিনামাটি, তামা, পিতল, কাঁসা এবং স্টিলের নানান আসবাবপত্র।

তবে পুরনো ফ্যাশন যেমন একসময় আবার নতুন করে ফিরে আসে, তেমনি বর্তমানে মৃৎশিল্পও শুধু তার ব্যবহার উপযোগিতাকে ছাপিয়ে ব্যবহৃত হচ্ছে ঘরদোর সাজানোর কাজেও।

শুধু ঘরদোর নয়। এখন অফিস, ডেস্ক, বেলকনি, বাসার ছাদ সব জায়গাতেই মাটির তৈরি জিনিসপত্র ব্যবহার হচ্ছে। ফুলদানি, ফুলের টব, ছাইদানি থেকে শুরু করে চায়ের পাত্র, থালা-বাসন, জগ-গ্লাস, শোপিচ সবকিছুতেই মাটির ছোঁয়া দেখা যায়।

এবারের মাসব্যাপী চলা বৃক্ষমেলায় মাটির টবে গাছ লাগাতে ৭৩ নং স্টল সাজিয়েছে ভোলা মৃৎশিল্প। অফিসের টেবিলে, ঘরের বারান্দায় কিংবা ছাদে দৃষ্টিনন্দন গাছ দিয়ে সাজাতে তারা এনেছে মাটির বিভিন্ন উপকরণ।

মাটির তৈরি ছোট টবের পাশাপাশি তারা এনেছে বিভিন্ন নান্দনিক ডিজাইনের বড় বড় টব। আছে ডিনার আইটেম, শোপিচ, টেরাকোটা, দেয়ালের সজ্জা, আয়না, ফুলদানি, কলমদানি, টেবিল শেড, ল্যাম্প শেড প্রভৃতি। এছাড়াও আছে পাটের তৈরি সিকা, থলে, ব্যাগ প্রভৃতি।