মাতৃভাষা দিবসে যুক্তরাজ্য জিয়া পরিষদের আলোচনা সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:১৬

মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে জিয়া পরিষদ যুক্তরাজ্য (ইউকে) শাখার উদ্যোগে ‘বাংলাদেশের বর্তমান রাজনৈতিক পেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের পূর্ব লন্ডনস্থ একটি রেস্তোরাঁয় বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

জিয়া পরিষদ ইউকে শাখার সভাপতি অধ্যাপক ড. সাইফুল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও জিয়া পরিষদ ইউকে শাখার সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর হাসান পল্টু ও সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবি কাউছার মাহমুদের যৌথ সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার অন্যতম উপদেষ্টা ও যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এমএ মালিক।

অন্যান্যের মধ্যে সভায় বক্তব্য দেন জিয়া পরিষদ ইউকে শাখার সিনিয়র সভাপতি অধ্যাপক ইকবাল খাঁন, সংগঠনের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার আরমান রফিক, ব্যারিস্টার আশিকুর রহমান, সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আবুল খায়ের সরকার, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল জব্বার মিয়া, মো. অহিদুজ্জামান, ব্যারিস্টার মোস্তাক এলাহী, মো. হাবিব উল্লাহ, সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক আহসানুল আম্বিয়া শোভন, অ্যাডভোকেট সুফিয়া পারভীন ময়না, সুনামগঞ্জ জেলা মহিলা দলের সহসভাপতি রাশিদা আহমদ ন্যান্সি, দপ্তর সম্পাদক মোস্তাক মুহাম্মদ শাওন, প্রচার সম্পাদক মাসুদুজ্জামান, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম, লন্ডন সেন্ট্রাল যুবদলের সহসভাপতি মোহাম্মদ রানা মিয়া, লন্ডন মহানগর বিএনপর সায়েদ আহমেদ, শাহরিয়ার জয়, ইস্ট লন্ডন বিএনপির জাকির আলম বিজয়, জিয়া পরিষদ লন্ডন মহানগর শাখার সভাপতি তানভির উর রশিদ, সাধারণ সম্পাদক আবু ছালেহ, মহিউদ্দিন আহমেদ, আফতাব উদ্দিন আলভী, হৃদয় ঘোষ, রাজিয়া সুলতানা লাবিবা, কেএম ওয়াহিদ ইশতিয়াকসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। সভায় বিএনপি ও জিয়া পরিষদের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় নেতৃবৃন্দ মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ওপর আলোকপাত করেন।পাশাপাশি বাংলাদেশে বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির ওপর বিস্তারিত আলোচনা করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমএ মালিক বলেন, বাংলাদেশের মানুষ বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা সকল মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

তিনি বলেন, বিএনপির বিগতদিনের আন্দোলনের সফলতা স্পষ্ট হয়েছে গত ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে। ওই নির্বাচনে ৫ শতাংশও মানুষও ভোট দিতে যাননি। শুধু বাংলাদেশের জনগণ নয় গণতান্ত্রিক বিশ্ব ও পশ্চিমা গণতান্ত্রিক দেশগুলো বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও ব্যাপক অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ দেখতে চায়। বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে হামলা, মামলা, গুম, খুন সত্ত্বেও অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে বিএনপি কোনো আপস করেনি।

অতি শিগগির বাংলাদেশের মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মাধ্যমে মধ্যবর্তী নির্বাচনের জন্য আন্দোলনের রূপরেখা প্রস্তুত বলে ঘোষণা দেন এমএ মালিক। একইসঙ্গে এই আন্দোলন সফলকাম হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সবশেষে সংগঠনের সভাপতি ড. সাইফুল আলম চৌধুরী নির্বাচনের আগে-পরে বাংলাদেশে অবস্থানের সময় অভিজ্ঞা তুলে ধরে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

(ঢাকাটাইমস/২২ফেব্রুয়ারি/জেবি/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

রাজনীতি এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :