সনদ জালিয়াতির অভিযোগে চাকরি থেকে বরখাস্ত গৃহায়নের কর্মকর্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৯:৩২ | প্রকাশিত : ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫:৩০

জালসনদে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের হিসাব সহকারী পদে চাকরি নেওয়ার অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ বা জাগৃকের কর্মচারী সমিতির সাবেক নেতা দেলোয়ার হোসেনকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তিনি ২০০৭ সালে এসএসসি ও এইচএসসির জাল সনদ দিয়ে এই পদে যোগদান করেন বলে প্রমাণ মিলেছে।

অসদাচরণ, দুর্নীতি ও প্রতারণার অভিযোগে বিভাগীয় মামলায় সনদ জালিয়াতির অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় গত রবিবার তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে গৃহায়ন চেয়ারম্যান খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান এনডিসি দেলোয়ারকে বহিস্কার করে অফিস আদেশ জারি করেন।

জাগৃক সূত্রে জানা যায়, জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের উচ্চমান সহকারী মো. দেলোয়ার হোসেন এর বিরুদ্ধে জাল সার্টিফিকেট দিয়ে চাকুরি নেয়ার বিষয়ে জনৈক আবুল বাশার মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর ২০২৩ সালের জুলাই মাসে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের উপর ভিত্তি করে মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (বর্তমানে যুগ্ম সচিব) দেবময় দেওয়ান তদন্ত করে গত বছর আগস্ট মাসে এক তারিখে গৃহায়ন ও গণপুর্ত সচিব বরাবর একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন জমা দেন। প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে সেদিনই দেলোয়ারের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা রুজু করা হয়।

অভিযুক্ত কর্মচারীর বিরুদ্ধে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ (কর্মকর্তা-কর্মচারী) চাকরি প্রবিধানমালা-২০০৫ এর প্রবিধান ৩৭ (খ), ৩৭ (ঙ) ৩৭ (চ) অনুযায়ী অসদাচরণ, দুর্নীতি এবং প্রতারণার অভিযোগে অভিযোগনামা এবং অভিযোগ বিবরণী প্রস্তুত করা হয়। এরমধ্যেই অভিযুক্ত কর্মচারী ফৌজদারি মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ায় তাকে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ থেকে গত বছর আগস্ট মাসে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এই সিদ্ধান্তের চিঠি অভিুক্তের স্থায়ী অস্থায়ী ঠিকানায় পাঠালেও তাকে না পাওয়ায় চিঠি ফেরত আসে। পরবর্তীতে তার লালমাটিয়ার বাসার দরজার নিচ দিয়ে সেটি রেখে আশা হয়। অভিযোগনামা এবং অভিযোগ বিবরণী তৈরির ১০ কর্মদিবস অতিবাহিত হলেও অভিযুক্ত কর্মচারী কোন জবাব দেননি।

অফিস আদেশে বলা হয়, জবাব না দেয়ায় জাগৃকের পরিচালক (ভূমি ও সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা) মো. আহসান হাবিবকে তদন্ত কর্মকর্তা এবং উপপরিচালক (ভূমি ও সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা) আর এম সেলিশ শাহনেওয়াজকে মামলা উপস্থাপনকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয় এবং ২০২৩ সালের ৩০ নভেম্বরের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়। পরবর্তীতে তিনবার সময় বৃদ্ধি করে তদন্ত সংশ্লিষ্টরা ২০২৪ সালের ২১ জানুয়ারী তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেন।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, অভিযুক্ত কর্মচারী দেলোয়ারের বিরুদ্ধে ২০০৭ সালে দাখিলকৃত এইএসসি সনদ জাল প্রমাণিত হয়েছে। অভিযুক্ত তার এইচএসসি প্রবেশপত্র, মার্কসিট, সনদপত্র এবং ফলাফল ও রেজিস্ট্রেশন কার্ড ইত্যাদিতে মো. দেলোয়ার হোসেন পিতা শিশু মিয়া নাম প্রয়োজনীয় সংশোধন না করেই মো. দেলোয়ার হোসেন পিতা-আব্দুল অহিদ নামে অন্যায়ভাবে প্রতারণামূলক প্রত্যয়নপত্র জমা দিয়ে জাতীয় গৃহায়ন কর্তপক্ষের ২০০৭ সালের হিসেব সহকারিসহ অন্যান্য ৯টি ক্যাটাগরিতে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে দুই নম্বর শর্ত ভঙ্গ করে চাকরিতে নিয়োগ লাভ করেছেন। যেটি ‘প্রতারণা’ এর দোষ। শুধু তাই নয় অভিযুক্ত এই কর্মচারীর এসএসসি ও এইচএসসি সার্টিফিকেটে পিতার নামের ভিন্নতা থাকা সত্ত্বেও বিষয়টি গোপন করার উদ্দেশ্যে পূর্বের সার্টিফিকেট, চাকরির আবেদনসহ যাবতীয় কাগজপত্র এবং অফিসের ব্যক্তিগত নথি অসৎ উদ্দেশ্যে সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, দেলোয়ার রাজশাহী সার্কেলে থাকা অবস্থায় ফাইল আটকে রেখে বাং ফাইল গায়েব করে সেবাগ্রহীতাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমান অর্থ ঘুষ হিসেবে আদায়। অনিয়ম ও দুর্নীতি করে সম্পদের পাহাড় গড়া এবং হুন্ডির মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা বিদেশে পাচারের অভিযোগের বিষয়ে সময় স্বল্পতার কারণে প্রমাণাদি না পাওয়ায় কোন মন্তব্য করা যাচ্ছে না। তাই ভূয়া বা জাল সনদে চাকরিতে যোগদান করার অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তাকে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ (কর্মকর্তা-কর্মচারি) চাকরি প্রবিধানমালা-২০০৫ এর ৪১ (৭) প্রবিধান মোতাবেক চাকুরি হতে বরখাস্ত করা হলো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

অপরাধ ও দুর্নীতি এর সর্বশেষ

পল্লবীতে পাভেল হত্যা: নেপথ্যে মাদক ব্যবসা, গ্রেপ্তার ৮

মাদক-ইয়াবা কারবারে বদির দুই ভাইয়ের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে সিআইডি

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের হটলাইন থেকে গ্রাহককে ফোন, অ্যাকাউন্টের টাকা হাওয়া

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৮, মামলা ৬

ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি গ্রেপ্তার 

এটিএম বুথের প্রহরী হত্যা: টাকা লুটের উদ্দেশ্যে নাকি ব্যক্তিগত কারণ? কী বলছে পুলিশ?

রাজধানীতে এটিএম বুথের নিরাপত্তাকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

কেএনএফকে সহযোগিতা, বান্দরবান থেকে একজন গ্রেপ্তার

ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে কিশোর গ্যাংয়ের হামলার শিকার সেই চিকিৎসকের মৃত্যু

রাষ্ট্রপতির আত্মীয় পরিচয়ে প্রতারণা, নিঃস্ব বহু ট্রাভেল ব্যবসায়ী

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :