গরমে কলা কালচে হয়ে যাচ্ছে, রোধ করার কৌশল

ফিচার ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৫১

তীব্র দাবদাহে মানুষের জীবন জেরবার। বৈশাখের ছাতি ফাটা রোদে প্রাণ ওষ্ঠাগত প্রায়। বিশেষজ্ঞদের মতে, গরমে কলা খেলে হাড় মজবুত হয়। শরীর সুস্থ থাকে কারণ এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম। এই ক্যালসিয়াম হাড় এবং দাঁত মজবুত করতে সাহায্য করে। অনেকেই মনে করেন, কলা খেলে মস্তিষ্কের কার্যকারিতাও বাড়ে। সকালে, শরীরচর্চার আগে ও পরে অথবা নাস্তায় কলা খাওয়া ভালো। কলা কম অ্যাসিডিক ফল এবং এটা দিন শুরু করার জন্য আদর্শ খাবার। কলা শক্তির ভালো উৎস এবং এটা হাইপোথাইর‍য়েডিজম সমস্যা কমায়। মন ভালো রাখে এবং দিনের বেলায় কলা খাওয়া শক্তি সরবারহ করে। অ্যাসিডিটি, মাইগ্রেইন ও এমনকি পায়ের পেশির টান দূর করতে সাহায্য করে।

গরমে শরীরে পানি ফুরিয়ে যায় দ্রুত। এতে দেখা দিতে পারে কোষ্ঠ্যকাঠিন্য। কলায় থাকা ফাইবার ও ফ্রুকটোজ এ সমস্যা দূর করতে সহায়ক। আমাদের দেশে কলা হল একমাত্র ফল, যা সারাবছর সুলভে পাওয়া যায়। বাড়িতে ৭ মাসের বাচ্চা থেকে শুরু করে ৭০ বছরের বৃদ্ধ- সবার জন্যই উপকারী হল কলা। কেউ খান ব্রেকফাস্টে ওটস বা কর্নফ্লেক্সের সঙ্গে। কেউ খান দুধ ভাত দিয়ে মেখে আবার কেউ রুটির সঙ্গে। এছাড়াও প্রসাদে নিবেদন করা হয় কলা। আমাদের দেশে কলা হল একমাত্র ফল, যা সারাবছর সুলভে পাওয়া যায়।

কলা আঁশ সমৃদ্ধ, যা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করে। কলাতে ফ্রুক্টোজ কম হওয়ায় এটা আইবিএস বা পেটের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে।

কলা উপকারী পুষ্টি উপাদান সমৃদ্ধ এবং হজম করা সহজ। কলা কেনার সময় স্থানীয় জাতের কলা বেছে নেওয়া ভালো। এগুলো ভেজাল মুক্ত ও স্থানীয় চাহিদার ওপর ভিত্তি করে উৎপাদন করা হয়। তাই নির্দ্বিধায় খাওয়া যায়। তবে গরমে একদিনের মধ্যেই কলা হয়ে যাচ্ছে কালো। দাম দিয়ে কেনা জিনিস। এভাবে নষ্ট হয়ে গেলে কার না খারাপ লাগে? কী আর করা যাবে? করা যাবে। এমন কিছু ঘরোয়া উপায় রয়েছে যাতে কলার কালচে হওয়া যাওয়া কিছু বেশি সময় পর্যন্ত রোখা সম্ভব। কীভাবে টাটকা রাখবেন? জেনে রাখুন

ইথিলিন নামক একটি বায়বীয় হরমোন যে কোনও ফল দ্রুত পাকিয়ে দেয়। কলার কাঁদিতে লেগে থাকে সেই হরমোন। এবার কলা যদি মাটিতে নামিয়ে রাখা হয় তাহলে হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। কলা পাকে তাড়াতাড়ি। কিন্তু কলা যদি ঝুলিয়ে রাখা হয় তাহলে এই সমস্যা অনেকটাই কম হয়। কম পরিমাণ ইথিলিন গ্যাস নির্গত হয়। তাই যে কোনও দোকানে কলা ঝোলানো থাকে।

যদি কলা ঝুলিয়ে না রাখতে চান তাহলে তা অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়েও মুড়ে রাখতে পারেন। এতে কলা দ্রুত পাকে না। ফলে কালো কোনও দাগ-ছোপও ধরে না। সেই সঙ্গে ইথিলিনও কম পরিমাণে নির্গত হয়।

কলা ঝুলিয়ে রাখার পর তার বৃন্তগুলি ফয়েল বা কোনও শুকনো সূতির কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখতে পারেন। এতে বাতাসের প্রভাব থেকে কিছুটা হলেও ফলটিকে বাঁচানো যাবে।

অনেক সময় অন্যান্য ফলের সঙ্গে কলা রেখে দেওয়া হয়। এর প্রভাবেও কলা তাড়াতাড়ি পেকে যেতে পারে বা কালচে রং দেখা যেতে পারে।

কালচে ভাব থেকে রক্ষা করতে কলা ভিনেগারে চুবিয়ে নিতে পারেন। অদ্ভূত মনে হলেও এই পদ্ধতি কাজে দেয়। তবে খাওয়ার আগে কলাটি ভাল করে ধুয়ে নেবেন।

কাঁদিসমেত কলা রেখে দিলে তাড়াতাড়ি পচন ধরে। কাঁদি থেকে আলাদা করে এক একটি কলা প্লাস্টিকে মুড়ে রাখলে দীর্ঘ দিন ভাল থাকে।

হলুদ কলা তাৎক্ষণিকভাবে দেখতে সুন্দর লাগলেও এগুলো খুব দ্রুতই পঁচে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। অন্যদিকে সবুজ দেখে কলা কিনলে সেগুলো থেকে আমরা ভিন্ন স্বাদও উপভোগ করতে পারি এবং হলুদ কলার তুলনায় বেশ দীর্ঘ সময় ধরে এগুলো ভালো থাকে।

পাকা কলা ফ্রিজে রাখলে অনেক বেশি দিন পর্যন্ত ভাল থাকে। তবে সব কলা একসঙ্গে রাখবেন না। বায়ুরোধী ব্যাগে ভরে ফ্রিজে রাখতে পারেন, এতে অনেক দিন পর্যন্ত কলা ভাল থাকে। চাইলে ডিপ ফ্রিজেও রাখতে পারেন। ফ্রোজেন কলা ৩০ দিন পর্যন্ত ভাল থাকে।

(ঢাকাটাইমস/১৭ এপ্রিল/আরজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফিচার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ফিচার এর সর্বশেষ

ত্বকের হারানো জেল্লা ফিরিয়ে দিতে পারে ডাবের পানি!

ডায়াবেটিস রোগীর জন্য নিমপাতা মহৌষধ! জানুন খাওয়ার নিয়ম

ক্যানসার-ডায়াবেটিসসহ বহু জটিল রোগের মোক্ষম দাওয়াই আখের রস

এই গরমে কেমন তাপমাত্রার পানিতে গোসল করলে শরীর থাকে চাঙ্গা?

পাইলসের মতো যন্ত্রণায়ক সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় যে পাঁচ ফল

হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমাতে হাঁটার চেয়ে বেশি কার্যকর সিঁড়ি ভাঙা

গরমে তৃষ্ণা পেলেই ঠান্ডা পানি খান? বিপদের কিন্তু শেষ থাকবে না

ঘুমের মধ্যে মুখ হাঁ হয়ে যায়? কী ভয়ানক বিপদ হতে পারে জানুন

যেসব খাবার রাতে খেলে ঘুমের মারাত্মক সমস্যা হতে পারে

সকালের নাস্তায় কী খাবেন কী নয়? লাভ-ক্ষতিসহ জানুন সবিস্তারে

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :