যুবলীগ নেতাকে পেটানোর অভিযোগ ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি, ঠাকুরগাঁও
 | প্রকাশিত : ১৩ জুন ২০১৭, ১৭:২৮

সদর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে স্থানীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদককে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে মথো ওরফে রঞ্জন নামের ওই যুবলীগ নেতা সোমবার বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

তাকে পেটানোর আগে আরো দুই নারী-পুরুষকে চেয়ারম্যান পেটান বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন যুবলীগ নেতা।  
মোহাম্মদপুর ইউপির হরিনারায়ণপুর বটতলী মহল্লার মথো ওরফে রঞ্জন লিখিত অভিযোগে জানান, কিছুদিন আগে তার নিজ বংশীয় এক ব্যক্তির সঙ্গে জমিজমা নিয়ে বিরোধ হয়। এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান তাকে গ্রামপুলিশ দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে ডেকে নিয়ে একটি কক্ষে আটকান, যেখানে আগে থেকে ছিলেন রাস্তার মাটিকাটা কর্মী কুলসুম বেগম ও তার স্বামী। তার সামনেই চেয়ারম্যান তাদের লাঠি দিয়ে বধড়ক পেটান। পরে তাদের বের করে দিয়ে পেটানো হয় রঞ্জনকে। পরে  চেয়ারম্যান নালিশি জমির তিন কোনায় লাল পতাকা তুলে দেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।
রঞ্জন আরো বলেন, ‘বাড়িতে গিয়ে শারীরিক সমস্যা বোধ করায় হাসপাতালে ভর্তি হই। হাসপাতালে ৩-৪ দিন ছিলাম। পরে সুস্থ হয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি, জেলার রাজনৈতিক নেতাদের কাছে বিচার চেয়েও আজ অবধি বিচার পাইনি। মারপিটের ব্যাপারে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে ভেবে এত দিন চুপ ছিলাম।’

চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে যুবলীগের নেতাকে মারপিটের অভিযোগ শুনেছেন বলে জানান জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মজিদ আপেল। তিনি বিষয়টি তদন্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছেন।

যুবলীগ নেতাকে মারপিটের অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে মোহাম্মদপুর ইউপি চেয়ারম্যান সোহাগ তা অস্বীকার করেন।

(ঢাকাটাইমস/১৩জুন/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত