নয়নের মৃত্যুতে মেয়ে হারানো এক বাবার মিষ্টি বিরতণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০২ জুলাই ২০১৯, ১৮:১৯ | প্রকাশিত : ০২ জুলাই ২০১৯, ১৮:০১
ময়মনসিংহে মিষ্টি বিতরণ (বাঁয়ে), বরগুনায় মিষ্টি বিতরণ (মাঝে) ও লাইন ধরে নয়নের লাশ দেখছেন স্থানীয়রা।

আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় প্রধান আসামি নয়ন বন্ড কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন বরগুনায়। তবে এই মৃত্যুতে স্বস্তি প্রকাশ করে মিষ্টি বিতরণ করেছেন ময়মনসিংহের বাসিন্দা এক বাবা, যার মেয়ে সম্প্রতি স্বামীর কুড়ালের কোপে খুন হয়েছেন। বাবা আ. আজিজের ভাষ্য, নয়নের মতো সব খুনিদের প্রাপ্ত শাস্তি এটাই।

গত ১১ জুন সাভারে স্বামীর কুড়ালের কোপে খুন হন তার মেয়ে নাজমা।

নয়ন বন্ডের মৃত্যুর খবর শুনে আ. আজিজ ফুলবাড়ীয়া উপজেলার কেশরগঞ্জ বাজারে তার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে মিষ্টি বিতরণ করেন। এ সময় তিনি তার মেয়ে হত্যার বিচার চান। ইতিমধ্যে তার মেয়ের স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আ. আজিজ বলেন, তার মেয়ে নাজমাকে তার স্বামী বকুল কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। মেয়ে হত্যায় পিতা হিসেবে আমি যে কষ্ট পেয়েছি ততটুকু কষ্ট তারাও পেয়েছেন। নয়ন বন্ড আমার মত কোনো বাবার সন্তানকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করেছে। পুলিশের হাতে এ হত্যাকারী নিহত হওয়ায় আমি খুব খুশি হয়েছি।

এদিকে নয়ন বন্ডের মরদেহ দেখতে বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে সাধারণ মানুষের ঢল নামে।সেই ঢল সামলাতে লাইনে দাঁড় করে কয়েক হাজার সাধারণ মানুষকে মরদেহ দেখার সুযোগ করে দেয় পুলিশ।

এ সময় নয়ন বন্ডের মরদেহ দেখতে আসা সাধারণ মানুষের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নয়ন বন্ড নিহত হওয়ার পর মঙ্গলবার সকালে তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা সদর হাসপাতালে আনা হয়।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর পেয়ে লাশটি দেখার জন্য কয়েক শ মানুষ জড়ো হন হাসপাতালের আশপাশে। এ সময় তাদেরকে উল্লাস করতে দেখা যায়।

গত বুধবার বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে দিনেদুপুরে প্রকাশ্যে স্ত্রীর সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রিফাত শরীফ নামের এক যুবককে। এই ঘটনা দেশব্যাপী তোলপাড় সৃষ্টি হয়। নিহত নয়ন বন্ড এই হত্যা মামলার প্রধান আসামি।

(ঢাকাটাইমস/০২জুলাই/বিইউ/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত