হাত-পা বেঁধে কুমার নদে ফেলে হত্যা

নিজস্ব প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ
 | প্রকাশিত : ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১০:০৮
কুমার নদ

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে হাত-পা বেঁধে একজনকে নদে ফেলে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। তার নাম শাহ আলম শেখ।

মঙ্গলবার রাতে মুকসুদপুর উপজেলার গোহালা ইউনিয়নের উত্তর গঙ্গারামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহ আলম ওই গ্রামের আব্দুল খালেক শেখের ছেলে। তিনি বর্তমান চেয়ারম্যান সফিকুল আলম মোল্লার অনুসারী।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মুকসুদপুর উপজেলার গোহালা ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার সকালে সিন্দিয়াঘাট বাজারে সাবেক চেয়ারম্যান লিটন বয়াতির অনুসারি ও বর্তমান চেয়ারম্যান সফিকুল আলম মোল্লার অনুসারিদের মধ্যে সংঘর্ষ  হয়। এতে নারীসহ উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়। আহতদের মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।

দুপুরে শাহ আলাম রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি আহত চাচাতো বোন মিনাকে দেখে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন। এরপর থেকে তাকে আরও পাওয়া যায়নি। অনেক খোঁজাখুঁজির পর এলাকাবাসী রাত পৌনে আটটার দিকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় শাহ আলমকে কুমার নদে পড়ে থাকতে দেখে। পরে রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

রাজৈর স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রদীপ মন্ডল জানান, হাসপাতালে আনার আগেই শাহ আলম  মারা গেছেন।

মুকসুদপুরের সিন্দিয়াঘাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি আবুল বাসার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারকে দেওয়া হবে। তাদের অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/১৬অক্টোবর/প্রতিনিধি/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :