তৎকালীন ঢাকা সদরে রাজাকার ৬০৪ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৯:২০

১৯৭১ সালে মানবতাবিরোধী অপরাধে যুক্ত ঢাকার বিভিন্ন জায়গার ৬০৪ জন রাজাকারের নাম প্রকাশ করা হয়েছে, যারা ঢাকার বিভিন্ন স্থানে পাকিস্তানিদের সহযোগিতা এবং নিজেরা খুন, ধর্ষণ, নির্যাতন, লুণ্ঠনসহ নানা মানবতাবিরোধী অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিল। 

আজ রবিবার মুক্তযুদ্ধ মন্ত্রণালয় রাজাকারের তালিকার প্রথম পর্ব প্রকাশ করে। সেখানে ১০ হাজার ৭৮৯ জন রাজাকারের নাম রয়েছে। প্রকাশিত তালিকায় জেলা ভিত্তিকভাবে রাজাকারদের নাম প্রকাশ করা হয়েছে।

তালিকা অনুযায়ী তৎকালীন ঢাকা সদরে রাজাকারের সংখ্যা ছিল ৬০৪ জন। এই সদরের আওতায় ছিল তৎকালীন মিরপুর, মোহাম্মদপুর, কমলাপুর ও কেরানীগঞ্জ।

প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী ঢাকা সদরের কেরানীগঞ্জে ৫২ জন রাজাকার ছিল। শান্তি কমিটির সদস্য ছিল ৪৫ জন। তেজগাঁও এলাকায় চারটি গ্রুপে রাজাকার ছিলেন ৪০ জন।  এর মধ্যে ‘এ’ গ্রুপে ৬ জন, ‘বি’ গ্রুপে ২৩ জন, ‘সি’ গ্রুপে ৫ জন, ডি গ্রুপে ৬ জন রাজাকারের নাম প্রকাশ করা হয়েছে।

১৯৭১ সালে মিরপুরে সবচেয়ে বেশি নারকীয়তা চালিয়েছিল পাকিস্তানিরা। তাদের সহযোগিতা করেছিল স্থানীয় রাজাকার ও শান্তি কমিটির সদস্যরা। ঢাকার মিরপুরে রাজাকারের তালিকা বেশ লম্বা। বৃহত্তম এই এলাকায় চারটি গ্রুপে রাজাকারের সংখ্যা ৩০৮ জন।

মিরপুরের মতো নির্মম নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছিল মোহাম্মদপুরে। পাকিস্তানিদের বেশ কিছু ক্যাম্প ছিল এই এলাকায়। রাজাকারদের সহযোগিতায় মুক্তিযোদ্ধা, তাদের পরিবারের সদস্য ও নিরীহ মানুষকে ধরে নিয়ে আসত রাজাকার বাহিনী। তাদের ওপর চলত নির্মম নির্যাতন। এই এলাকার রাজাকার তালিকায় উঠে এসেছে ১৯৮ জনের নাম।

এ ছাড়া তালিকায় প্রকাশ পেয়েছে পাকিস্তানিদের সহযোগিতা প্রদানকারী ৫৮ জনের নাম। যাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে এবং বিচারের অপেক্ষায় আছে। পলাতক অবস্থায় রয়েছে ৩২ জন। বিশেষ ট্রাইবুনালে যাদের বিচার চলছে এমন ৭১ জনের নাম রয়েছে এই তালিকায়।

(ঢাকাটাইমস/১৫ডিসেম্বর/কারই/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :