৫ মাসে ৪০ কেজি ওজন কমিয়েছেন সাহানা

ঢাকা টাইমস ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ১২:৩৭

ওবেসিটি থেকে বাঁচার প্রধান পথ হল খাওয়া নিয়ন্ত্রণ করা, যাকে বলা হয় ডায়েটিং করা এবং শারীরিক পরিশ্রম। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে, নিয়ন্ত্রিত খাওয়া-দাওয়ার ফলে হয়তো ওজন কমল, তবে তা সাময়িক। সেরকমই ওবেসিটির শিকার হয়েছিলেন সাহানা শেট্টি নামে এক বছর ৩২ বছরের তরুণী। পেশায় তিনি একজন ফুড ব্লগার। অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবিটিস হয়ে যায় তার। যার ফলে তার মনে ধাক্কা লাগে। তিনি উপলব্ধি করেন, লাইফস্টাইল বদল করতে হবে তার। এর পর শুরু করেন শরীরের যত্ন। কোনও ডায়েটেশিয়ান বা ব্যক্তিগত প্রশিক্ষক ছাড়াই ৫ মাসে ৪০ কিলো ওজন কমিয়ে সকলের সামনে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন।

কোলেস্টেরল ও অতিমাত্রায় ডায়াবিটিস হওয়ার কারণে প্রায়শই অসুস্থ হয়ে পড়তেন। তিনি বলেছেন, 'ডাক্তার আমাকে বলেছিলেন যে, ওজন হ্রাস করতে হবে। তখন আমি সিদ্ধান্ত নিই যে আমি মূল্যে ওজন কমাতে হবে'।

যার প্রথম পদক্ষেপ হল চিনি ছেড়ে দেওয়া। ডায়েটিশিয়ান বা ফিটনেস প্রশিক্ষকের কোনো সহায়তা ছাড়াই অতিরিক্ত সমস্ত ওজন হ্রাস করতে সক্ষম হয়েছেন তিনি। টাইমস অব ইন্ডিয়াকে তার ওজন কমানোর প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানিয়েছেন সাহানা।

ওজন কমাতে রোজ ডায়েটে যা রাখতেন

ব্রেকফাস্ট: মিলেটের ডোসা ও রসুনের চাটনি

লাঞ্চ: আটার বদলে বাজরার রুটি ও সবজির তরকারি। যা তিনি ঘরেই তৈরি করে নিতেন

ডিনার: রাগি দিয়ে তৈরি যে কোনও খাবার

ওয়ার্ক আউট

ওজন কমানোর জন্য প্রতিদিন হাঁটতেন। কমপক্ষে দেড় ঘন্টা হাঁটতে শুরু করলেন। এর পাশাপাশি যোগব্যায়ামও করতেন।

গোপন ফিটনেস কী

এটি আপনার খাবারের বিষয়ে নয়, আপনি যেগুলো খান সেগুলো ওজন হ্রাস করাই স্বাস্থ্যের জন্য ভালো, একজন মানুশকে অবশ্যই পরিমিতভাবে খাওয়া উচিত। পার্টি, নিমন্ত্রণ বাড়িতে গেলে পরিমিত খাবার খেতে হবে। খাবারের পাশাপাশি হজমেও মনোযোগ দিতে হবে। খাবার যাতে ভালো করে ডাইজেস্ট হয় সেদিকেও মন দিতে হবে।

ঢাকা টাইমস/২৩জানুয়ারি/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফিচার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :