কারাগারে সাংবাদিক শামসুজ্জামান: পরিবারকে সহমর্মিতা জানাল পেশাজীবী নেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ৩১ মার্চ ২০২৩, ২০:১৭

কারাগারে থাকা প্রথম আলোর সাংবাদিক শামসুজ্জামান শামসের বাসায় গিয়ে তার পরিবারকে সহমর্মিতা জানিয়েছেন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা।

শুক্রবার বিকেলে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের আহ্বায়ক প্রফেসর ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন ও সদস্য সচিব সাংবাদিক কাদের গনি চৌধুরীর নেতৃত্বে পেশাজীবীদের একটি প্রতিনিধি দল শামসুজ্জামানের বাসায় যান।

তারা শামসুজ্জামানের মা করিমন নেসার সঙ্গে দেখা করে পরিবারের সদস্যদের সার্বিক খোঁজখবর নেন।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পেশাজীবী নেতা প্রফেসর ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, অধ্যাপক ড. শামসুল আলম সেলিম, অধ্যাপক ড. কামরুল আহসান, অধ্যাপক ড. নুরুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. নজরুল ইসলাম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিকুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার ফখরুল আলম, ইঞ্জিনিয়ার রুহুল আলম আকন্দ, ইঞ্জিনিয়ার সাখাওয়াত হোসেন, বিপ্লবউজ্জামান বিপ্লব প্রমুখ।

এসময় পেশাজীবী নেতাদের পেয়ে শামসুজ্জামানের মা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, আমার ছেলের কী অপরাধ? তাকে কেন এভাবে ধরে নিয়ে গেল? শামসকে বললে সে নিজেই থানায় চলে যেত। ৩৫ ঘণ্টাতো আমরা তার খোঁজই পাইনি। তাহলে কী সত্য লেখা যাবে না? ছেলেকে অনেক বার বলেছি, বাবা লেখালেখি ছেড়ে দাও। আমার শামস বলেতো, মা আমিতো অসত্য লেখি না। সত্য লিখার জন্য যদি আঘাত আসে আসুক, তারপরও লিখে যাব।

শামসের মুক্তির জন্য দেশের বিভিন্ন সংগঠন ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বিবৃতি দেওয়ায় তিনি কৃতজ্ঞতা জানান।

এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেন, সরকারের আমলে গণমাধ্যম কর্মীদের শঙ্কা ও ভয়ের মধ্যে দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। তাই তারা এখন সত্য তুলে ধরতে পারছেন না। তাদেরকে এখন সেলফসেন্সরশিপ করতে হচ্ছে। পাশাপাশি সরকারের সমালোচনা করলে রোষাণলের শিকার হয়ে বন্ধ করা হচ্ছে বিভিন্ন পত্রিকা ও অনলাইন। সাংবাদিকরা খুন হচ্ছেন, বিচার পায় না।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের অধীনে গণমাধ্যমের যে স্বাধীনতা নেই শামসের গ্রেপ্তার এবং দৈনিক দিনকাল বন্ধের মাধ্যেম তা আবারও প্রমাণিত হলো।

কাদের গনি চৌধুরী বলেন, দেশে এক ভয়ানক শাসন কায়েম হয়েছে। মানুষের মৌলিক অধিকারগুলো আজ হরণ করা হয়েছে। ভাষা আছে কিন্তু বাক স্বাধীনতা নেই। গণমাধ্যম আছে, কিন্তু গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নেই। আদালত আছে ন্যায় বিচার নেই। সাংবাদিক নির্যাতন এবং একের পর এক গণমাধ্যম বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে।

(ঢাকাটাইমস/৩১মার্চ/জেবি/এসএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

রাজনীতি এর সর্বশেষ

কৃষকদলের তিন নেতাকে বহিষ্কার

কল্যাণ পার্টির একাংশের চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন পারভেজ, মহাসচিব হানিফ

লুটপাট-দুর্নীতি করে দেশকে ভঙ্গুর অবস্থায় ফেলেছে সরকার: টুকু

আন্দোলন চলবে এবং শিগগিরই আরও বেগবান হবে: মির্জা ফখরুল

নির্বাচন বর্জনে ‘অর্জন’ দেখতে পাচ্ছে বিএনপি!

আ.লীগ বাংলাদেশের নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে: টুকু

আওয়ামী লীগের এই সরকার আজিজ-বেনজীরের সরকার: মির্জা ফখরুল

বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের হিড়িক শুরু হয়েছে: কৃষক দল

পরবর্তী প্রজন্মকে পাঠাগারের দিকে আকৃষ্ট করতে পারলে রাজনীতি সমৃদ্ধ হবে: মির্জা ফখরুল

বৈদেশিক ঋণনির্ভর বাজেট গরিবদের জন্য নয়: নিতাই রায় চৌধুরী 

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :