প্রতিরোধ যোদ্ধাদের প্রশংসা

স্বজনদের ফিরে পেয়ে আনন্দিত পশ্চিম তীরবাসী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০২৩, ১৬:০৫ | প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর ২০২৩, ১৩:৪৭

ইসরায়েল এবং হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি চুক্তির অংশ হিসাবে ইসরায়েলি কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর শুক্রবার ৩০ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি বন্দি অধিকৃত পশ্চিম তীরে ফিরেছেন। এতে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠে পুরো পশ্চিম তীর। দীর্ঘদিন পর আপন মানুষকে ফিরে পেয়ে আনন্দিত স্বজনরা।

বার্তা সংস্থা এপির প্রতিবেদনে বলা হয়, যুদ্ধবিরতির প্রথম দিনে ৩৯ জন কারাবন্দিকে মুক্তি দিয়েছে ইসরায়েল। এরমধ্যে পশ্চিম তীর থেকে ৩৩ জন ফিলিস্তিনিকে আন্তর্জাতিক রেড ক্রস কমিটির কাছে তুলে দেওয়া হয়। এছাড়া বাকি ছয়জনকে জেরুজালেম থেকে মুক্তি দেয়া হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয় অধিকৃত পশ্চিম তীরের রামাল্লাতে একটি ইসরায়েলি কারাগারের সামনে কারামুক্তদের স্বাগত জানাতে জড়ো হয়েছিলেন হাজারো ফিলিস্তিনি। এ সময় তারা ফিলিস্তিনের পতাকা, কেউ হামাসের সবুজ পতাকা নাড়িয়ে, স্লোগান-হাততালি ও চিৎকারের মাধ্যমে আনন্দ প্রকাশ করেন।

এ ছাড়া তাদের স্বাগত জানাতে পশ্চিম তীরজুড়ে আতশবাজি ফুটানো এবং দেশত্ববাদী ফিলিস্তিনি পপ সংগীত বাজানো হয়।

ফিলিস্তিনি বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের মিলিত হওয়ার আনন্দঘন মুহূর্তের ভিডিও প্রকাশ করেছে লেবাননের আল-মানার টিভি চ্যানেল। যেখানে দেখা যায়, ২০১৫ সালে ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হওয়া মারাহ বাকের নামে এক তরুণী তার পরিবারের সঙ্গে আলিঙ্গন করছেন। শুক্রবার তিনি জেরুজালেম থেকে মুক্তি পান।

এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ইসরায়েলি কারাগার থেকে যারা মুক্তি পাচ্ছে তাদের চিকিৎসা প্রয়োজন। কারণ, প্রত্যেক বন্দিকে কারাগারে কোনো ধরনের চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়নি।