ফরিদপুরের দুই আসনে স্বতন্ত্র ভোট করবেন হেভিওয়েট দুই প্রার্থী আজাদ ও দোলন

ফরিদপুর প্রতিনিধি, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২৩, ১৩:০৪ | প্রকাশিত : ২৮ নভেম্বর ২০২৩, ০১:৪৭

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুরের দুটি সংসদীয় আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের হেভিওয়েট দুই নেতা। এর মধ্যে ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনে প্রার্থী হচ্ছেন এ কে আজাদ। আর ফরিদপুর-১ (আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী, মধুখালী) আসনে প্রার্থী হচ্ছেন আরিফুর রহমান দোলন।

দেশের শীর্ষ ব্যবসায়ী সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ ফরিদপুর-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন। দলের মনোনয়ন না পাওয়ার পর সোমবার রাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোট করার ঘোষণা দেন জেলা আওয়ামী লীগের এ উপদেষ্টা।

অন্যদিকে ঢাকা টাইমস সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলন ফরিদপুর-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ভোট করার ঘোষণা দিয়েছেন। রবিবার গণভবনের সভা থেকেই ফেসবুক পোস্টে এই ঘোষণা দেন সমাজসেবামূলক সংস্থা কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান দোলন।

ফরিদপুরের এই আসন দুটিতে আজাদ ও দোলন দুজনই হেভিওয়েট প্রার্থী। স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে তাদের নির্বাচনে নামার ঘোষণায় আসন দুটিতে ভোটের সমীকরণ বদলে যেতে পারে বলেই মনে করছেন রাজনীতি সচেতন মহল।

ফরিদপুর শহরের ঝিলটুলিতে নিজ বাসভবনে সোমবার রাতে সমর্থক নেতাকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করেন এ কে আজাদ। পরে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোট করার ঘোষণা দেন। এই আসনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম হক।

এ কে আজাদের ঘোষণার সময় জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফারুক হোসেন, ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগের আহবায়ক মনিরুল হাসান মিঠু, যুগ্ম আহবায়ক মনিরুজ্জামান মনির, অ্যাডভোকেট বদিউজ্জামান বাবুল, ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা শাহ আলম মুকুল, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শহিদুল ইসলাম নিরুসহ আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী ও সহস্রাধিক সমর্থক উপস্থিত ছিলেন।

সভা শেষে উপস্থিত নেতাকর্মীদের এ কে আজাদ বলেন, ‘ফরিদপুর অঞ্চলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে উন্নয়নের ধারার সূচনা করেছেন সেটি অব্যাহত রাখতে ও আমার সমর্থকদের কথা বিবেচনা করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে চাই।’

এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি আজাদ বলেন, শিল্পে পিছিয়ে পড়া এই অঞ্চলের শিল্প কারখানা প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা রয়েছে আমার। অল্প শিক্ষিত ও শিক্ষিত বেকার সমাজকে কর্মসংস্থানের সুযোগ দিতে আমি রাজনীতিতে আগ্রহী হয়েছি। আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলাম, সেটা না পেলেও স্বতন্ত্রভাবে সংসদ সদস্য হয়ে জনগণের পাশে দাঁড়াতে চাই।

অন্যদিকে ফরিদপুর-১ আসনের আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন আরিফুর রহমান দোলন। এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান।

আরিফুর রহমান দোলন রবিবার ফেসবুকে লিখেন, ‘ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে লড়াইয়ের অনুমতি দিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। কৃতজ্ঞতা। প্রধানমন্ত্রী বললেন, স্বতন্ত্র দাঁড়াতে কোনো অসুবিধা নেই। তৈরি থাকুন ফরিদপুর-১ আসনের জনগণ। আপনারাই শক্তি।’

এই লেখায় দোলন ইঙ্গিত দেন তিনি ফরিদপুর-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোট করবেন। এই আসনের তিনটি উপজেলা আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী ও মধুখালীতে দোলন নানা কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে এলাকার উন্নয়নে মানুষের সেবায় নিয়োজিত ছিলেন।

দোলনের কর্মী-সমর্থকরা মনে করেন, ফরিদপুর-১ নির্বাচনি এলাকায় মানুষের সুখে-দুঃখে সবসময় পেয়েছে দোলনকে। বিশেষ করে করোনা মহামারিসহ নানা দুর্যোগে স্থানীয় এমপিকে পাশে পাননি তারা। তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে দোলনকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করে শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে পারবে।

আওয়ামী লীগ সভাপতির নির্দেশ মোতাবেক স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দোলন। ফরিদপুর-১ আসনের জনপ্রিয় এই নেতা বলেন, ‘মানুষের ভালোবাসায় বিপুল ভোটের মধ্য দিয়ে বিজয়ী হয়ে আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এই আসনটি উপহার দিতে পারবো।’

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করা প্রসঙ্গে আরিফুর রহমান দোলন বলেন, ‘দীর্ঘ এক যুগ ধরে ফরিদপুর-১ আসনের সুখে-দুঃখে পাশে আছি। তাদের ইচ্ছাই দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবো।’

দোলন বলেন, ‘মহান আল্লাহ সহায় থাকলে অবশ্যই সাধারণ মানুষের ভালোবাসা এবং আমি বিপুল ভোটের মধ্য দিয়ে বিজয়ী হতে পারবো। ফরিদপুর-১ আসনের সর্বসাধারণ আমার কষ্টের প্রতিদান দেবেন বলেই আমি বিশ্বাস করি।’

ফরিদপুর অঞ্চলের মানবহিতৈষী পুরুষ প্রয়াত কাঞ্চন মুন্সীর সুযোগ্য উত্তরসূরি দোলন আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী ও মধুখালীর মানুষের জন্য নিরলসভাবে নানামুখী উন্নয়ন কাজ করে আসছেন। মানুষের কাছে থেকে মানুষের পাশে থেকে দোলন পরোপকারী জননেতা হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। দোলনের নানামুখী উন্নয়ন কর্মকাণ্ড লাখো মানুষের প্রশংসা কুড়িয়েছে।

এদিকে দোলনকে ফরিদপুর-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ে সোমবার আলফাডাঙ্গা ও বোয়ালমারী উপজেলায় পৃথকভাবে বিশাল মিছিল করেছেন তাঁর সমর্থকরা। তারা বলছেন, সবসময় মানুষের পাশে থাকা, কাছে থাকা দোলনই তাদের প্রতিনিধি হয়ে সংসদে যাওয়ার যোগ্য।

(ঢাকাটাইমস/২৮নভেম্বর/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

রাজনীতি এর সর্বশেষ

এবার দল পুনর্গঠনে বিএনপি 

বিদ্যুৎ খাতে লুণ্ঠন নীতির মাশুল জনগণ দেবে না: গণতন্ত্র মঞ্চ

বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চলছে: ওবায়দুল কাদের

সদ্য কারামুক্ত আলালের বাসায় গয়েশ্বর

৭৪ সালে দুর্ভিক্ষের চক্রান্তে বিএনপির এক নেতার বাবা জড়িত ছিলেন: প্রধানমন্ত্রী

জনগণের প্রতি প্রতিশোধ নিতেই সরকার বিদ্যুৎ ও জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধি করতে চাচ্ছে: রিজভী

মাতৃভাষা দিবসে যুক্তরাজ্য জিয়া পরিষদের আলোচনা সভা

রক্তে অর্জিত ভাষাকে বিদেশি আগ্রাসন থেকে রক্ষা করতে হবে: শিবির সভাপতি

কখনো যুব মহিলা লীগ নেত্রীর দুলাভাই কখনো স্বামী, অবশেষে প্রতারণা মামলায় গ্রেপ্তার

উপজেলা নির্বাচনে জামানত বৃদ্ধির প্রস্তাব অস্বাভাবিক: মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম কাউন্সিল

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :