হাই পারফরম্যান্স দলে শ্রেয়াস-ইশান, আবারও ফিরতে পারেন কেন্দ্রীয় চুক্তিতে

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ মে ২০২৪, ১৮:৩৯

বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা ক্রিকেটারদের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলা বাধ্যতামূলক। তবে গত মৌসুমে বিসিসিআইয়ের নির্দেশ অমান্য করে ঘরোয়া ক্রিকেটের ম্যাচ খেলেননি শ্রেয়াস আইয়ার ও ইশান কিশান। এই দুই ক্রিকেটারের এমন কান্ডে ক্ষুব্ধ হয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।এরপর তাদের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকেও বাদ দেয়া হয়। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলেও তাদের বিবেচনা করা হয়নি। অবশ্য এই দুই ক্রিকেটারকে নিজেদের ভুল সুধরে নেয়ার সুযোগ দিচ্ছে বিসিসিআই। দুজনকেই তারা হাইপারফরম্যান্স মনিটরিং প্রোগ্রামে ডেকেছে।

তাদের নিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমকে বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা বলেছেন, 'ইশান বা শ্রেয়াসের ওপর বোর্ডের কোনো রাগ নেই। ঘরোয়া ক্রিকেটের প্রতি যদি তারা শ্রদ্ধা দেখায়, নিজেদের রাজ্যের হয়ে খেলতে নামে এবং ভালো খেলে তাহলে আবার তাদের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ফেরানো হতে পারে। হাই পারফরম্যান্স মনিটরিং প্রোগ্রামে তাদের যুক্ত করা মানে ওই দুই ক্রিকেটারকে বুঝিয়ে দেওয়া যে, তারা নির্বাচকদের নজরে রয়েছে।

এই প্রোগ্রামে ডাক পেয়েছেন মোট ৩০ ক্রিকেটার। মূলত ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটে ধারাবাহিক পারফর্ম করা ক্রিকেটাররাই এখানে জায়গা পেয়েছেন। আইপিএলের এবারের আসরে আলো ছড়ানো এক ঝাঁক ক্রিকেটার সেখানে সুযোগ পেয়েছেন।

রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে দারুণ মৌসুম কাটানো রায়ান পরাগের সঙ্গে এই প্রোগ্রামে ডাক পেয়েছেন, হার্শিত রানা, উমরান মালিক, আভেষ খান, মায়াঙ্ক যাদব, সাই কিশোরের মতো তরুণ ক্রিকেটাররা। এ ছাড়া পৃথ্বী শও আছেন এই তালিকায়।

হাইপারফরম্যান্স প্রোগ্রামে সুযোগ পেয়েছেন মুশির খানও। ভারতের হয়ে সর্বশেষ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ভালো পারফরম্যান্স করার সুবাদে এই দলে তাকে ডাকা হয়েছে। তার আরেকটি পরিচয় ভারতীয় ব্যাটার সরফরাজ খানের ছোটো ভাই তিনি। ১৯ বছর বয়সী মুশির মুম্বাইয়ের রঞ্জি ট্রফি জয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন।

(ঢাকাটাইমস/২০মে/এনবিডব্লিউ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :