‘সাত খুনের আসামিদের ক্ষমার কথা বলা পাগলের প্রলাপ’

মহিউদ্দিন মিশু, আখাউড়া থেকে
 | প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারি ২০১৭, ১৯:৩০

আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের দিকে ইঙ্গিত করে বলেছেন, ‘বিএনপিতে একজন নাট্যকার আছেন Ñযিনি টেলিভিশনের পর্দায় সব সময় মিথ্যা ও অসত্য কথা বলে থাকেন। ওই নাট্যকার নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর সাত খুনের মামলায় নূর হোসেন ও সাবেক তিন র‌্যাব কর্মকর্তাসহ ২৬ আসামির ফাঁসির রায় নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি মহাসচিব মন্তব্য করেছেন, নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ফাঁসির রায় মহামান্য রাষ্ট্রপতি নাকি আসামিদের ক্ষমা করে দেবেন। এগুলো পাগলের প্রলাপ। পাগলে কি না বলে, ছাগলে কি না খায়।’

শনিবার দুপুরে নিজ নির্বাচনী এলাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের রিফাতনগরে আয়োজিত তিতাস নদী পুনঃখনন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের ধারাবাহিকতা থাকলে দেশের উন্নয়ন হয়, জাতি সমৃদ্ধশালী হয়ে উঠে। তাই বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য জনগণের ভালোবাসা নিয়ে ২০১৯ সালে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ আবারও ক্ষমতায় আসবে।’

এ সময় মন্ত্রী বলেন, ‘জিয়া, এরশাদ, খালেদাÑ এ তিনজন ২১ বছর ধরে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে ঘুরত। কিন্তু বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা দেশের মানুষ যেন মর্যাদা নিয়ে বাঁচেন সেই চেষ্টাই করে যাচ্ছেন।’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন তলবিহীন ঝুড়ি নয়। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা এখন মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের চেয়ে প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ এখন অনেক এগিয়ে আছে। খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা উন্নয়নে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মধ্যে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল।’

বর্তমান সরকারকে জনগণের সরকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশকে সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন ছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের। তাকে সেই কাজ করতে দেননি পাকিস্তানি ঘাতকরা। এখন তারই কন্যা শেখ হাসিনা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে এগিয়ে যাচ্ছেন। যতক্ষণ দেশের মানুষ বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়, ততক্ষণ পর্যন্ত এই সরকার বাংলাদেশের সরকার থাকবে ইনশাআল্লাহ।’

১১৯.৬৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ১১০ কিলোমিটার তিতাস নদী পুনঃখনন প্রকল্পের ড্রেজিং কাজের চারটি প্যাকেজের ডিপিএম পদ্ধতিতে বাংলাদেশ নৌবাহিনী নিয়ন্ত্রিত ‘ডকইয়ার্ড অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংওয়াকর্স লি. নারায়ণগঞ্জ’ এই খনন কাজ করবে।

এছাড়া তিতাস নদী খনন কাজ বাস্তবায়নের আওতায় ব্রাক্ষণবাড়িয়ার এন্ডারসন (কুরুলিয়া), আখাউড়া ও কসবা এলাকার ১৮ কিলোমিটার কাজের উদ্বোধনও আনিসুল হক।

মো. আক্তার হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যাপক জয়নাল আবেদিন, যুগ্ম আহ্বায়ক ও জেলা পরিষদ সদস্য আবুল কাশেম ভূঁইয়া, মেয়র তাকজিল খলিফা, সেলিম ভূঁইয়া, অ্যাডভোকেট শেখ লুৎফুর রহমান লিটন প্র্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/২১জানুয়ারি/প্রতিনিধি/জেবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত