চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নারী সদস্যের মারধরের মামলা

বগুড়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৫ জুন ২০১৭, ১৮:৪২

বগুড়ার ধুনটে চিকাশী ইউনিয়নে সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্যকে মারধর করার অভিযোগে চেয়ারম্যান নাজমুল কাদির শিপনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তবে শিপন এই মামলাকে হয়রানিমূলক আখ্যা দিয়েছেন।

সোমবার চিকাশী ইউনিয়ন পরিষদের ৭, ৮, ৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য শিউলী খাতুন বাদী হয়ে বগুড়ার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলাটি করেন।

মামলায় বলা হয়, শিপন চিকাশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে ওই ইউনিয়নে বিধবা ভাতা, বয়স্কভাতা, ভিজিডি, ভিজিএফ কার্ড বিতরণসহ টিআর প্রকল্পে দুর্নীতি করে আসছেন। এর প্রতিবাদ করেন খাতুন। গত ২১ মে ইউপি সদস্য শিউলী খাতুন ও রাশেদা খাতুন জন্ম নিবন্ধন ও ভিজিডি কার্ড সংশোধন করতে চেয়ারম্যান নাজমুল কাদির শিপন কক্ষে গেলে ওই জের ধরে তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করতে থাকে। এর প্রতিবাদ করলে ইউপি চেয়ারম্যান সবার সামনেই মহিলা ইউপি সদস্য শিউলী খাতুনকে কিল ঘুষি ও লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেন।

পরে অন্য ইউপি সদস্যরা শিউলী খাতুনকে উদ্ধার করে ধুনট হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। ইউপি চেয়ারম্যানের মারধরে অসুস্থ হয়ে চার দিন হাসপাতালে ছিলেন বলেও জানান শিউলী খাতুন।

শিউলী খাতুন বলেন, ‘ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল কাদির শিপন প্রভাবশালী হওয়ায় তার ঘুষ দুর্নীতির প্রতিবাদ করতে কেউ সাহস পায় না। এসবের প্রতিবাদ করায় সে আমাকে সবার সামনেই চুল ধরে টানাহেঁচড়া করে কিল ঘুষি ও লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় শিপনকে প্রধান আসামি করে বগুড়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছি।’

তবে চেয়ারম্যান শিপন তার বিরুদ্ধে ঘুষ দুর্নীতির অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমি কাউকে মারধর করিনি। আমার বিরুদ্ধে ঘুষ দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে এবং মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/৫জুন/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত