শেষ হল শাকিবের ‘শাহেনশাহ’

বিনোদন প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৪:৫৪ | প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৪:৫১
‘শাহেনশাহ’ ছবির মহরত অনুষ্ঠানে শাকিব খান, নুসরাত ফারিয়া, রোদেলা জান্নাত ও পরিচালক রনি

প্রায় দুই মাস পর শেষ হল শাকিব খানের নতুন ছবি ‘শাহেনশাহ’র শুটিং। গত ২৪ অক্টোবর এফডিসির মান্না ডিজিটাল কমপ্লেক্সের সামনে সেট ফেলে শুরু হয়েছিল এই ছবির শুটিং। সেদিন ছিল বুধবার। শেষও হল বুধবারে। আজ বুধবার ঢাকার অদূরে পূবাইলে শেষ দিনের মতো অন হয়েছিল লাইট-ক্যামেরা। সেখানে ছবির নায়ক শাকিব খানের পাশাপাশি অংশ নেন দুই নায়িকা নুসরাত ফারিয়া ও রোদেলা জান্নাতসহ অনেকে।

‘শাহেনশাহ’ পরিচালনা করেছেন শামীম আহমেদ রনি। এই পরিচালকের ‘মেন্টাল’ ও ‘বসগিরি’ ছবিতে এর আগে কাজ করেছেন শাকিব খান। অন্যদিকে নুসরাত ফারিয়া এবং রোদেলা জান্নাত প্রথমবারের মতো কাজ করেছেন বাংলাদেশি কিং খানের সঙ্গে। এর মধ্যে নুসরাত ফারিয়া ইন্ডাস্ট্রির প্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রী হলেও রোদেলা জান্নাত একেবারেই আনকোরা। অর্থাৎ ‘শাহেনশাহ’ তার অভিষেক ছবি। আলোচিত নায়িকা শবনম বুবলীর মতো তিনিও একজন সাবেক সংবাদ পাঠিকা।

ছবিটি নিয়ে বেশ আশাবাদী এটির পরিচালক শামীম আহমেদ রনি। শেষ দিনের শুটিং শেষে ‘শাহেনশাহ’কে একটি আধুনিক সিনেমা হিসেবে উল্লেখ করেছেন তিনি। বলেন, ‘বলিউডে অমিতাভ বচ্চনকে সবাই ‘শাহেনশাহ’বলেন। এবার শাকিব খানকেও বাংলাদেশের দর্শক ‘শাহেনশাহ’ বলে ডাকবে। নাম ছাড়া দুই শাহেনশাহের মধ্যে কোনো মিল থাকবে না। কাজটি ভালোভাবে শেষ করেছি। বাকিটা মুক্তির পর প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে ছবি দেখলেই সবাই বুঝতে পারবেন।’

তবে এ ছবির শুটিং করতে গিয়ে একটি তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছে নায়ক শাকিব খান ও পরিচালক শামীম আহমেদ রনির। গত ৮ নভেম্বর বিএফডিসিতে শুটিং চলাকালে সিনে ডিরেক্টরিয়াল অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (সিডাব) সদস্যদের সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পড়েন শাকিব খান। যেটা প্রায় হাতাহাতির পর্যায়ে চলে যায়। পেশাগত দায়িত্ব পালনে সেই মুহূর্তের ছবি ও ভিডিও ধারণ করতে গেলে জিয়া উদ্দীন আলম ও সুদীপ্ত সাইদ নামে দুই বিনোদন সাংবাদিকের ওপর চড়াও হন নায়ক। উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন বলেও অভিযোগ ওঠে।

সেই ঘটনায় দেশসেরা নায়ক শাকিব খান ও পরিচালক শামীম আহমেদ রনির বিরুদ্ধে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট তিনটি সমিতিতে গত ১০ নভেম্বর লিখিত অভিযোগ জানান লাঞ্ছনার শিকার দুই সাংবাদিক। তারা প্রথম অভিযোগপত্রটি পাঠান বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতিতে(বাচসাস)। পরে একই দিন সন্ধ্যায় একই অভিযোগপত্র পৌছে যায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে। তবে সেই জল বেশি দূর গড়ায়নি। তিন সমিতির মধ্যস্ততায় বিষয়টির মীমাংসা হয়ে যায়।

ঢাকা টাইমস/১৯ ডিসেম্বর/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :