লাখ টাকা কুড়িয়ে পেয়ে ফেরত দিলেন পুলিশ সদস্য

কোরবান আলী, ঝিনাইদহ
 | প্রকাশিত : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:৩৮

ঝিনাইদহের মহেশপুরে ৯৭ হাজার টাকা কুড়িয়ে পেয়ে এর মালিককে ফেরত দিয়েছেন পুলিশের একজন কনস্টেবল। লোভ সংবরণ করে সততার দৃষ্টান্ত রাখায় তার ব্যাপক প্রশংসা করা হচ্ছে।

ওই পুলিশ সদস্যের নাম মুসা মিয়া। তিনি মহেশপুর থানাতেই কাজ করেন। আর এই টাকার মালিক স্থানীয় টিন ব্যবসায়ী আশরাফুল হক।

রবিবার সকাল ১১ টার দিকে মহেশপুর ব্র্যাক অফিসের সামনের রাস্তায় একটি ব্যাগ পড়ে থাকতে দেখেন কনস্টেবল মুসা। এর ভেতরে বেশ কিছু কাগজপত্র এবং প্রায় এক লাখ টাকা আছে দেখতে পেয়ে তিনি ব্যাগটি নিয়ে থানায় যান। পরে যোগাযোগ করা হয় এর মালিক আশরাফুল হকের সঙ্গে।
মহেশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাশেদুল আলম জানান, মুসা মিয়া ব্যাগটি কুড়িয়ে পাওয়ার পর দেখতে পান এর ভেতর টাকা, চেক, জমির দলিল রয়েছে। পরে তিনি ব্যাগসহ টাকা থানায় জমা দেন।

ব্যাগের ভেতরে পাওয়া ঠিকানা অনুযায়ী পুলিশ ব্যবসায়ী আশরাফুল হককে খবর দেয়। তার বাড়ি মহেশপুর উপজেলার নেপা ইউনিয়নের কুল্লা গ্রামে। আর মালিকানার প্রমাণ দেওয়ার পর তাকে টাকাসমেত ব্যাগটি ফেরত দেওয়া হয়।

ব্যাগটি ফিরে পেয়ে যারপরনাই উচ্ছ্বসিত আশরাফুল হক। জানান, টাকা থাকায় ব্যাগটি ফিরে পাওয়ার ব্যাপারে আশা ছেড়ে দিয়েছিলেন। তার ভাবনার কারণ, এতগুলো টাকা কেউ ফিরিয়ে দেবে বলে তিনি ভাবেননি।

আশরাফুল জানান, তিনি জমি কেনার জন্য ঘরে থাকা ৯৭ হাজার টাকা নিয়ে যাচ্ছিলেন খালিশপুর ব্যাংকে। সেখান থেকে আরো টাকা তুলে জমির মালিককে পাওনা পরিশোধ করতেন। কিন্তু পথে কীভাবে যেন ব্যাগটি পড়ে গিয়েছিল। ব্যাংকে গিয়ে চেক খুঁজতে গিয়ে টের পান, ব্যাগটি তার সঙ্গে আর নেই।

যখন আশা ছেড়ে দিয়েছেন, তখন মহেশপুর থানা থেকে খবর পাঠানো হয় আশরাফুলের কাছে। তার কাছে সেটি ছিল স্বপ্নের মতো। আর সঙ্গে সঙ্গে ছুটে যান থানায়। সেখানে যাচাই বাছাই শেষে টাকাসহ ব্যাগটি ফিরিয়ে দেওয়া হয়।

কনস্টেবল মুসার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকবেন বলে জানান আশরাফুল। বলেন, তার মতো সৎ মানুষের জন্যই সমাজ এখনো  টিকে আছে।

ঢাকাটাইমস/১৮ফেব্রুয়ারি/প্রতিবেদক/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :