সংসদে প্রশ্ন

‘বদিকে দিয়ে মাদক, শাজাহানকে দিয়ে সড়ক নিয়ন্ত্রণ কতটুকু সম্ভব?’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২২:০০ | প্রকাশিত : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:০৪

সরকার দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদিকে রেখে ইয়াবা প্রতিরোধ ও সাবেক মন্ত্রী শাহাজান খানকে দিয়ে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা কতটুকু সম্ভব হবে এ নিয়ে সংসদে প্রশ্ন তুলেছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম।

সোমবার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে জাতীয় পর্টির নেতা এই প্রশ্ন তোলেন। তবে তার এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সড়কে শৃঙ্খলা আনতে শাজাহান খানকে প্রধান করে গঠিত কমিটি নিয়ে কেউ আশঙ্কা করলেও, ভালো কিছু আসতে পারে।

সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাহাজান খানকে প্রধান করে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে একটি কমিটি করেছে সরকার। আর এ নিয়ে নানা কথাবার্তা হচ্ছে। কারণ, তিনি পরিবহন মালিক এবং শ্রমিকদের নেতা। নানা সময় শ্রমিকদের পক্ষে অবস্থান নিয়ে গণমাধ্যম এবং সামাজিক মাধ্যমে তুমুল সমালোচনা হয়েছে।

এ বিষয়ে সড়ক মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সড়ক কাউন্সিলের সভা করেছি। এই সভায় মন্ত্রীরা ছিলেন, সড়ক পরিবহন সংশ্লিষ্ট নেতারা ও সড়ক বিশেষজ্ঞরা ছিলেন। তাদের উপস্থিতিতে সভা করে কমিটি করেছি। শাজাহান খানের নামটি প্রস্তাব করা হলে কেউই এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করেননি। কমিটিতে আরও ১৪ জন আছেন।’

‘আমি এখানে ব্যক্তিকে দেখছি না। তারা কমিটি মিলে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে কী সুপারিশ দেয়, সেটাই দেখার বিষয়। এখানে ব্যক্তি কোনো বিষয় না। কাজ করবে কমিটি। দেখুন আপনি যতটুকু আশঙ্কা করছেন তার চেয়ে ভালো কিছুও তো আসতে পারে।’

অবশ্য কক্সবাজারে আলোচিত নেতা আবদুর রহমান বদির প্রসঙ্গে কোনো বক্তব্য দেননি ওবায়দুল কাদের।

টেকনাফের সাবেক সংসদ সদস্য ইয়াবা কারবারের ‘গডফাদার’ বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর এসেছে। সরকারের একাধিক তালিকায় তার নামও ছিল। যদিও তিনি এই অভিযোগ বরাবর অস্বীকার করে আসছেন।

সমালোচনার কারণে এবার বদিকে মনোনয়ন দেয়নি আওয়ামী লীগ। তার বদলে নৌকা মার্কা পেয়ে সংসদ সদস্য হন শাহীন আক্তার চৌধুরী।

সম্প্রতি কক্সবাজারের টেকনাফে ইয়াবা কারবারে জড়িত যে ১২০ জন আত্মসমর্পণ করেছেন, তাতে বদির ভূমিকাও ছিল। তিনিই এদেরকে উদ্বুদ্ধ করেছেন বলে নিজে জানিয়েছেন। আত্মসমর্পণকারীদের মধ্যে বদির বেশ কয়েকজন আত্মীয়ও ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/১৮ফেব্রুয়ারি/বিইউ/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :