শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু: চয়ন ইসলাম

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:৫৭

বিতর্কিত কর্মকাণ্ড করলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাউকেই সহ্য করবেন না মন্তব্য করে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৭ম কংগ্রেসের আহ্বায়ক সিরাজগঞ্জ-৬ আসনের সাবেক সাংসদ চয়ন ইসলাম। বলেন, ‘যারা দলের প্রভাব খাটিয়ে অবৈধপন্থায় বিপুল সম্পদের মালিক হয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। তার নির্দেশেই শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে। শুধু ঢাকায় নয়, অভিযান চলবে জেলা ও উপজেলায়ও।’

গতকাল দুপুরে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের চর নবীপুরে ড. মাযহারুল ইসলামের কবর জিয়ারত, দোয়া ও এক গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ক্যাসিনোকাণ্ডের চলমান অভিযান নিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়ে চয়ন ইসলাম বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা সাবধান! ভূমি দখলকারীরা সাবধান! জুয়াড়িরা সাবধান! টেন্ডারবাজরা সাবধান! চাঁদাবাজরা সাবধান! মাদক কারবারিরা সাবধান! শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। এই অ্যাকশনের টার্গেট থেকে কোন অপকর্মকারীই রেহাই পাবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ দল থেকেই শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। এই সৎসাহস তার আছে। বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে আর কোন শাসক, আর কোন প্রধানমন্ত্রী, আর কোন রাষ্ট্রপতি এই সৎ সাহস দেখাতে পারেননি যে, নিজের দলের অপকর্মকারী, অপরাধীকে শাস্তি দিয়েছেন।’

আওয়ামী লীগের নেতায় নেতায় দ্বন্দ্ব নিয়ে দলের সম্পাদক বলেন, ‘ঘরের মধ্যে ঘর করবেন না। মশারির মধ্যে মশারি খাটাবেন না। দুঃসময়ের ত্যাগী নেতাকর্মীদের কোণঠাসা করে আওয়ামী লীগ টিকে থাকতে পারে না। আজকে বসন্তের কোকিলরা যদি দলের নেতৃত্ব নেয়, তারা যদি প্রাধান্য পায়, আবারও দুঃসময় আসতে পারে। আবারও দুর্যোগ আসতে পারে। আবারও অমানিশা আসতে পারে। সে সময় হাজার পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও এই সুবিধাবাদী অপকর্মকারীদের খুঁজে পাওয়া যাবে না।’

চয়ন ইসলাম আরো বলেন, ‘যুবলীগে খারাপ লোকের আমাদের দরকার নেই। ক্লিন ইমেজের পার্টি দরকার, আগামী জাতীয় কংগ্রেসকে সামনে রেখে আমরা দলকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন মডেলে ঢেলে সাজাতে চাই। আমরা ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব গড়ে তুলতে চাই সারাদেশে। খারাপ ইমেজের লোক, যাদের ভাবমূর্তি নেই- এসব লোককে দলে টেনে পাল্লা ভারি করে কোন লাভ নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘সারাদেশে আওয়ামী লীগের সুদিন চলছে। ইউনিয়ন থেকে উপজেলা পর্যায়ে সম্মেলন। এখানে গ্রুপ ভারি করার জন্য যেন বিএনপি জামায়াতের লোকদের আশ্রয় দেয়া না হয়। ত্যাগীরা কোণঠাসা হবে- এটা মেনে নেয়া হবে না। আওয়ামী লীগ এমপি সাহেবের দল নয়, শেখ হাসিনার দল আওয়ামী লীগ।’

সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদ ইউসুফ জুয়েলের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য দেন- কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির নেতা আসাদুজ্জামান তুষার, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল হক, শাহজাদপুর উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইউনুস আলী, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মারুফ হাসান সুনাম প্রমুখ। এ সময় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগসহ সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/২৫অক্টোবর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :