আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক কাদের

সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্ব

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১৯:০৫

সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের মধ্য থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্ব নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ বৃহস্পতিবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলনের মাঠ পরিদর্শন করতে গিয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

এই মাঠেই শনিবার অনুষ্ঠিত হবে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন। গুঞ্জন চলছে সম্মেলনে  নতুন নেতৃত্ব আসছে এই সংগঠনে। এর শীর্ষ দুই পদে স্থান পাওয়ার দৌড়ে যে ডজন খানেক নেতার নাম শোনা যাচ্ছে, তাদের বেশির ভাগই ছাত্রলীগের সাবেক নেতা।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন,  সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের মধ্যে যারা যেখানে থাকতে চায় এবং যাদের ক্লিন ইমেজ রয়েছে, সৎ, কর্মঠ, তাদের নেতৃত্বে আনা হবে। আমাদের সবই ঠিক করা আছে।’

এবারের স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন একই মঞ্চে হবে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। মঞ্চ হবে নৌকা আকৃতির।

স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে, এতে সম্মেলন করতে কোনো সমস্যা হবে কি না জানতে চাইলে আওয়ামী লেিগর সাধারণ সম্পাদক বলেন, অন্য নেতারা আছেন। সবকিছুই হবে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে দলের নিয়মনীতি অনুযায়ী। এই সংগঠনের দেখভাল করছেন শেখ হাসিনা।’

যুবলীগের নেতৃত্ব বর্তমান কমিটির বাইরে থেকে আসার কথা শোনা যাচ্ছে। এমন প্রশ্নে জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যুব লীগের বাইরে থেকে নেতৃত্ব আসবে এমন কথা আমি জানি না। স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুবলীগের কাউন্সিলররা যদি মনে করে বাইরে থেকে কাউকে আনবে সে ক্ষেত্রে তাদের সিদ্ধান্ত। সর্বোপরি আমাদের নেত্রী আছেন, তিনি হলেন সবার অভিভাবক। তিনি যদি মনে করেন সংশোধন করে নতুন পথে চলার জন্য, তিনি যেটা ভালো মনে করবেন আমরা সেটাই ভালো মনে করব।’

 

বিএনপি বলছে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করছে ও আওয়ামী লীগ থেকে বিএনপিতে যাওয়ার জন্য নেতারা চেষ্টা করছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নির্বাচনে ব্যর্থ, আন্দোলন ব্যর্থ।  এখন তার নেত্রী খালেদা জিয়া কারাগারে আছে। এর জবাব দিতে তিনি (মির্জা ফখরুল) পারছে না। তারা রাস্তায় একটি দৃশ্যমান আন্দোলন করতে পারেনি। তাই ফখরুলের এখন কথার মালা ছাড়া আর কোনো সম্পদ নেই।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দীন নাছিম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলিম, শেখ সোহেল রানা টিপু, খায়রুল ইসলাম জুয়েল, সাজ্জাদ সাকিব বাদশা প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/১৪নভেম্বর/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :