পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্সকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধন্যবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২:০১ | প্রকাশিত : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:৫৪

জন্মদিনে তাকে ঘিরে বই প্রকাশ অন্যরকম প্রাপ্তি বলে উল্লেখ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বলেছেন, এটি স্মরণীয় হয়ে রইল। জন্মদিনের এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কিছু নেই।

মঙ্গলবার ছিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর জন্মদিন। এই দিন তাকে নিয়ে লেখা ‘নন্দিত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খান’ বইটি প্রকাশ করা হয়। বইটি প্রকাশ করেছে পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লিমিটেড। সম্পাদনা করেছেন ডিআইজি হাবিবুর রহমান।

মঙ্গলবার বিকেলে এ উপলক্ষে রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রকাশিত বইটি সম্পর্কে বলতে গিয়ে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘বাংলাদেশে যে বইয়ের এত সুন্দর প্রকাশনা হয়, এত মানসম্মত বই প্রকাশ হয়-আমার জানা ছিল না। পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স যে বইটি প্রকাশ করেছে তার প্রকাশনা খুবই ভালো হয়েছে। খুব সুন্দর কাজ হয়েছে। প্রকাশক কামরুল হাসান শায়কের নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় এত সুন্দর কাজ হয়েছে। এজন্য আমি পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্সকে ধন্যবাদ জানাই।   

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। বক্তৃতা করেন দুদক কমিশনার ড. মোঃ মোজাম্মেল হক খান, সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, কথাশিল্পী ইমদাদুল হক মিলন, কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি)ড. জাবেদ পাটোয়ারী, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ,  ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বইটির প্রকাশক এবং পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লিমিটেডের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান শায়ক। এছাড়া ডিআইজি হাবিবুর রহমান অনুষ্ঠানে বইটি সম্পর্কে নানা তথ্যভিত্তিক বক্তব্য তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্সের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ও তার সহধর্মিনী মৌসুমী আক্তার আলো ফুলের তোরা দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান।  

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে নিয়ে বইতে তার বাল্যকাল, পড়াশোনা, মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণসহ রাজনীতিতে অংশ নেওয়ার বিষয়াবলী উঠে এসেছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'আমার কাছে এসে ডিআইজি হাবিব বললেন, আপনাকে নিয়ে একটি বই লিখবো। আমি বললাম কী ধরনের বই লিখবেন? তখন তিনি বললেন, আপনার মুক্তিযুদ্ধ ও আপনার কর্মকাণ্ড নিয়ে। তখন আমি বললাম চলো আমার সঙ্গে।'

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, 'পরে আমার বন্ধুবান্ধব, আমার সঙ্গে যুদ্ধ করেছে এবং আমার আত্মীয়দের পরিচয় করিয়ে দিই। এরপর তিনি বিভিন্নজনের সঙ্গে কাজ শুরু করেন। বিভিন্ন মানুষকে নিয়ে তিনি অনেক কষ্ট করে দুঃসাহসিকতার সঙ্গে বইটি সমাপ্ত করতে পেরেছেন। এজন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই।'

(ঢাকাটাইমস/ ৩১ ডিসেম্বর/ এইচএফ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :