ওসির ফোনে পালালো কিস্তি নিতে আসা মাঠকর্মী

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৪ জুন ২০২০, ২৩:০১

গাজীপুরের টঙ্গীতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে ঋণের কিস্তি নিতে আসা দুই এনজিও কর্মী ওসির ফোন পেয়ে পালিয়ে গেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে ‘সিডর বাংলাদেশ’ নামে একটি এনজিওর দুইজন মাঠকর্মী কিস্তি নিতে আসলে টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি আমিনুল ইসলাম ইসলাম তাদের ফোন করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ থানায় যেতে বললে তারা পালিয়ে যান।

জানা যায়, সকালে সিডর বাংলাদেশ নামে একটি এনজিওর দুই কর্মী ঋণের কিস্তি নিতে আসেন। এ সময় এনজিওর ঋণ নেয়া সদস্যরা কিস্তি পরিশোধে অপারগতা প্রকাশ করেন। এক পর্যায়ে এনজিওর দুই কর্মী বলেন, আমরা সরকারি নির্দেশনা নিয়ে এসেছি। কিস্তি পরিশোধ করতেই হবে। এসময় সরকারি নির্দেশনার কাগজ দেখতে চাইলে ওই দুই কর্মী ভুয়া দুটি কাগজ দেখায়, যাতে কোন সরকারি সিলমোহর অথবা সচিব পর্যায়ের কারও স্বাক্ষর ছিল না।

এনজিওর ঋণগ্রহিতা আনিসা বেগম জানান, আমরা সিডর বাংলাদেশ নামে একটি এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে ভাগ্যের চাকা সচল করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু দেশের এই ক্রান্তিকালে আমরা কোন কাজকর্ম করতে পারছি না। আমাদের সংসার চালাতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে। এ সময় আমাদের পক্ষে ঋণের কিস্তি দেয়া কোনভাবেই সম্ভব নয়। সরকার বলেছে, এই পরিস্থিতিতে কোনভাবেই ঋণের কিস্তি নেয়া যাবে না। এমন কথা বলাতে কোনভাবেই এনজিও-র দুইকর্মী ঋণের কিস্তি ছাড়া যাবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন।

পরে টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি আমিনুল সাহেবকে ফোনে জানাই। এসময় ওসি সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী কোনভাবেই ঋণের কিস্তি নেয়া যাবে না বলে এনজিও কর্মীদের হুঁশিয়ারি দেন। অবস্থা বেগতিক দেখে পালিয়ে যান এনজিওর ওই দুই কর্মী।

টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, দেশের ক্রান্তিকালে কোনভাবেই ঋণের কিস্তির আদায় করা যাবে না। এই মর্মে সরকারি কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। পরবর্তী সরকারি নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত কোন কিস্তি আদায় চলবে না। কিস্তি পরিশোধে কোথাও কাউকে বাধ্য করা হলে থানা পুলিশকে জানানোর অনুরোধ করেন ওসি।

(ঢাকাটাইমস/৪জুন/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :