সাংবাদিক সেকেন্দারের ওপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তার দাবি

মধুখালী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৯ মে ২০২১, ১৭:৫৫

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় সাংবাদিক সেকেন্দার আলমের ওপর অতর্কিত হামলার প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের শনাক্ত করে দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মধুখালীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

রবিবার দুপুরে উপজেলা সদরের রেলগেট এলাকায় ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে রুর‌্যাল জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন (আরজেএফ) মধুখালী শাখার নেতারা। কর্মসূচীতে উপজেলায় কর্মরত গণমাধ্যম কর্মীরা অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন মধুখালী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কাজল বসু, রুল্যাল জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন (আরজেএফ) মধুখালী শাখার সভাপতি শাহজাহান হেলাল, প্রবীন সাংবাদিক হাজী আ. মালেক শিকদার, নজরুল ইসলাম, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি মির্জা গোলাম ফারুক, মধুখালী রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মনিরুজ্জামান মন্নু, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান সরদার, আরজেএফ মধুখালী শাখার সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান মিঞা, সাংবাদিক মেহেদি হাসান পলাশ, সালেহীন সোয়াদ সাম্মি, রিফাত বিশ্বাস প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সাংবাদিক সেকেন্দার আলমের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত শনাক্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। যেন আগামীতে কেউ এ ধরনের ঘটনা ঘটানোর সাহস না পায়।

আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। বিষয়টি তদন্ত করে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, সাংবাদিক সেকেন্দার আলম অসুস্থ থাকায় মামলা করতে দেরি হচ্ছে। গতকাল তার জ্ঞান ফিরেছে। তার সঙ্গে কথা বলে হামলার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের দ্রুত শনাক্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সাংবাদিক সেকেন্দার আলম বাড়িতে ইফতার শেষে মোটরসাইকেলযোগে পবনবেগ যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে পূর্বপাড়া নতুন মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছালে হঠাৎ তার মুঠোফোনে একটি কল আসে। তিনি মোটরসাইকেল থামিয়ে কলটি রিসিভ করে কথা বলতে থাকেন। এ সময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই পেছন দিক থেকে একদল দুর্বৃত্ত তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

এতে তিনি অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে পথচারীরা দেখতে পেয়ে তাকে মারাত্মক আহত অবস্থায় উদ্ধার করে আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সেকেন্দার আলম উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোসলেম শেখের ছেলে। তিনি রুর‌্যাল জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন (আরজেএফ) এর কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি। এছাড়া আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, সাপ্তাহিক আমাদের আলফাডাঙ্গা পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক এবং দৈনিক ভোরের পাতার আলফাডাঙ্গা উপজেলা প্রতিনিধি।

(ঢাকাটাইমস/৯মে/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :