বিনিয়োগকারীদের ধৈর্য ধরার আহ্বান বিএসইসি কমিশনারের

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ২১:০৩

পুঁজিবাজার উঠা-নামা করবে এটা স্বাভাবিক। এজন্য বিনিয়োগকারীদের ধৈর্য ধরতে হবে। ধৈর্যের সঙ্গে নিজেদের সম্পদ ধরে রাখতে হবে। প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে বলে মনে করেন নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিরিটিজ অ্যাড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ।

সোমবার বর্তমান বাজার পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের আলাপকালে তিনি বলেন, দিনের পর দিন যখন মার্কেট বেড়েছে তখন কোনো কথা হয়নি। বাজার যখন কয়েক দিন সংশোধন হচ্ছে, তখন ভয় বেড়ে যায়। আবার যখন প্রতিনিয়ত বাজার বাড়ে তখন ভয় কমে যায়। এটা স্বাভাবিক, এমনটা হতেই পারে। এজন্য বিনিয়োগকারীদের ধৈর্য ধারণ করতে হবে।

বিএসইসি কমিশনার বলেন, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের উচিত মার্কেটকে আরও বেশি সাপোর্ট করা। কারণ দিন শেষে তাদের মুভমেট প্রভাব ফেলে। সে ক্ষেত্রে তাদের আরও বিচার-বিশ্লেষণাত্মক ক্রয়-বিক্রয় করা উচিত। তাহলে তাদের জন্য এবং বাজারের জন্য ভালো হবে। তারাও কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখছি যে বেশ তাড়াহুড়া করছে। এটা না করলেও মনে হয় তাদের তেমন কিছু সমস্যা হবে না। তারাতো প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী। এমন অস্থির হওয়ার কোনো কারণ নেই।

শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, যিনি যে প্রতিষ্ঠানেরই হোন না কেন, অন্যায় করলে জবাবদিহি করতে হবে। যদি আমিও অন্যায় করি, আমাকেও জবাবদিহি করতে হবে। এটাই সোজা-সাফটা হিসাব।

বিএসইসি কমিশনার বলেন, আমরা আমাদের মতো অনেক কিছু করি কিন্তু দেখেন যে, আমরা গত দেড় বছরে ৫২টা ট্রেক পারমিশন দিয়েছি। কী কারণে দিয়েছি, কারণ মানুষ যেন এখানে আরও যুক্ত হয়ে বিনিয়োগ করতে পারে।

শেখ সামসুদ্দিন বলেন, গুজবের জন্য আমরা একটা মনিটরিং সেলস গঠন করছি। আসলে সবকিছুই ওভার টাইম হচ্ছে, এখন কিছু কিছু সময় যদি মার্কেটে একটা কারেকশন হয় বা এখানে কেউ যদি কিছু শেয়ার বিক্রি করতে চায় সেটা করতেই পারে। আর কিছু কিছু দায়িত্বে অবহেলা থাকে সেই দায়িত্বে অবহেলাকে চিহ্নিত করে সেগুলোকে সমাধান করতে সময় লাগে।

(ঢাকাটাইমস/২৫অক্টোবর/এসকেএস/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :