জেনেভায় আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালিত

ইউরোপ ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০:২৫

বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন জেনেভায় সোমবার যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হলো আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস ২০২২। কাউন্সেলর কামরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই সুইজারল্যান্ড প্রবাসী কমিউনিটি ও সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সভাপতি জমাদার নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খানের নেতৃত্বে নবাগত রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সুফিউর রহমানকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও স্বাগত জানান সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন শহর থেকে আগত প্রবাসীরা।

অভিবাসী ও বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রবাহের উপর একটি তথ্য ও ব্যাখ্যাভিত্তিক চলচ্চিত্র উপস্থাপনের মধ্যদিয়ে আলোচনা সভার সূচনা হয়।

আলোচনা সভায় জেনেভায় নবনিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সুফিউর রহমান জানান, সরকার প্রবাসীদের অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ৩০ ডিসেম্বরকে “জাতীয় প্রবাসী দিবস”হিসেবে ঘোষণা করেছে। সুইজারল্যান্ডে স্বল্পসংখ্যক অভিবাসী থাকলেও অনেক প্রবাসী দেশের চেয়েও আনুপাতিক হারে বেশি রেমিটেন্স প্রেরণের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি প্রবাসীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং রেমিট্যান্স প্রেরণের এ ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি প্রবাসীদের সহায়তা কামনা করেন। জনসংখ্যাতাত্ত্বিক লভ্যাংশ কাজে লাগানোর উদ্দেশ্যে সরকার দক্ষতা বৃদ্ধির উপর জোর দিচ্ছে, যাতে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক অগ্রযাত্রা বেগবান করার সাথে তা কাজে লাগিয়ে বিদেশে দক্ষ জনশক্তি প্রেরণে এবং অভিবাসী কর্মীদের স্বার্থ, নিরাপত্তা ও অধিকার রক্ষায় সরকার দেশে এবং দেশের বাইরে বিভিন্ন দেশ ও আর্ন্তজাতিক সংস্থাসমূহের সাথে নিয়মিত কাজ করছে। বাংলদেশের অভাবনীয় আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অভিবাসীরা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন। দেশের চলমান উন্নয়নে অধিকতর অবদান রাখতে হলে বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে পরিবর্তিত ও দক্ষ কর্মসংস্থানের জন্য বাংলাদেশি অভিবাসী কর্মীদের অধিকতর ও নতুনতর দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে তৈরি হতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন- সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি জমাদার নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাসুম খান দুলাল, উপদেষ্টা অশোক কুমার সরকার রবি, আসরাফুল আলম লিটন, মিয়া আবুল কালাম, আনিস খান, বাকি উল্লাহ খান প্রমুখ।

সভায় সুইজারল্যান্ডে বসবাসরত বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রবাসীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন। তারা ই-ব্যাংকিং সুবিধা, বাংলাদেশের অফিস সময়ের বাইরেও ছুটির দিনে ব্যাংকিং সেবা, রেমিট্যান্স প্রেরণে সর্বোচ্চ সীমা ও এ সংক্রান্ত জটিলতা, রেমিট্যান্স গায়েব হওয়া ইত্যাদি বিষয় ও সমস্যার সমাধানের উপর জোর দেন। রাষ্ট্রদূত তাদের পরামর্শ, সুপারিশ ও নানাবিধ সমস্যার কথা শোনেন। প্রবাসীরা তাদের কল্যাণে সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের প্রশংসা করেন।

(ঢাকাটাইমস/০২ফেব্রুয়ারি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :