স্বাধীনতা বিরোধীরা আবার ঐক্যবদ্ধ হয়েছে: পাপন

ভৈরব ( কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯:১৪

দেশে স্বাধীনতার বিরোধীরা আবার ঐক্যবদ্ধ হয়েছে এবং তারা স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিকে শেষ করে দিতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বলেন, স্বাধীনতার পরাজিত শক্তিরা একের পর এক ষড়যন্ত্র করছে। তাদের বিরুদ্ধে আমরা মাঠে আছি থাকব।

শনিবার দুপুর ১টায় কুলিয়ারচর উপজেলার ছয়সুতি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়কে কলেজ রূপান্তর করায় কলেজের কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তার বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার পর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু রাজাকার আলবদরের ক্ষমা করেছিলো তারা যেন নিজেদের সংশোধন করতে পারে কিন্তু তারা নিজেরা তাদের ভুল সংশোধন না করে পুনরায় তারা ষড়যন্ত্র করে ১৫ আগস্টে সপরিবারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুতে হত্যা করে। তারা চেয়েছিল দেশকে ধ্বংস করে দেওয়ার জন্যই জাতির জনককে হত্যা করেছিল।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু দেশের গরিব-দুঃখী মানুষের হাসি ফোটানোর জন্য নিজের জীবন বাজি রেখে সারা জীবন রাজনীতি করেছেন। তাকেই এই দেশের মানুষ কিছু কুচক্রীরা নৃশংসভাবে সপরিবারে হত্যা করে। তারা শুধু বঙ্গবন্ধুকে একা হত্যা করেনি। শুধু বেঁচে যায় বিদেশে অবস্থান করা তার দুই কন্যা। তাদের মধ্য একজন হলে দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাকেও ২১ বার হত্যার চেষ্টা চালায় ৭১ সালের সেই রাজাকার আলবদরের দলেরা।

পাপন বলেন, শুধু তাই নয় বাংলাদেশে আওয়ামী লীগকে শেষ করে দিতে একের পর এক হামলা চালায়। এসব হামলায় আহসান উল্লাহ মাস্টার, এসএম কিবরিয়া, আমার আম্মা আইভী রহমানকে গ্রেনেড হামলায় নির্মমভাবে হত্যা করে। সেদিন যদি আমার আম্মার ওপর গ্রেনেড না পড়ে ট্রাকের ওপর গ্রেনেড পড়তো তাহলে সেদিন দেশনেত্রী শেখ হাসিনা প্রাণে বেঁচে থাকতে পারতো না। সেই দিন কুচক্রী বিএনপির-জামায়াত দল আমার আম্মাকে চিকিৎসা করতে দিলো না। তারা নিষেধ করে দেয় যেন আমার আম্মাকে কোথাও নেয়া যাবে না।

মা আইভী রহমানের নিহত হওয়ায় ঘটনা তুলে ধরে ছেলে পাপন বলেন, মারা যাবার পর রাত আড়াইটার পর ফোন করে আমাকে বলে আমার আম্মা মারা গেছে তখন আমি আসছি তখন তারা বলে আসতে হবে না। তখন তারা আমার আম্মাকেও দেখতে দেয়নি। সেই বিএনপি এখনোও শুধু মিথ্যাচার করে চলছে। আপনাদের বিবেককে প্রশ্ন করেন দেশে কি দুর্নীতি হয়েছে। ভৈরব কুরিয়ারচরে আমার আব্বা ও আমি কী দুর্নীতি করেছি আপনারা বলেন। আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে যে উন্নয়ন হয়েছে তা বিগত কোনো আমলে উন্নয়ন হয়নি। তাদের আমলে শুধু দুর্নীতি হয়েছিল।

সেজন্যই আপনারদের বলবো নিজের বিবেককে প্রশ্ন করুন। তারা তিনবার দেশের ক্ষমতায় ছিল তারা দেশে কী উন্নয়ন করেছে। কিন্ত দেশনেত্রী শেখ হাসিনা যে দেশের যে উন্নয়ন করেছে তা সারা বিশ্বের রোল মডেল হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকরা কখনো ভয় পায় না। আমরা মাঠে আছি স্বাধীনতার বিরোধীদের প্রতিরোধ করতে মাঠে আছি। বঙ্গবন্ধুর কন্যার সঙ্গে আমরা আছি। উনি দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়েছেন। এখন দেশকে স্মার্ট বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলবেন আসুন আমরা উনাকে আরেকবার সুযোগ দেয় দেশকে বিশ্বের মধ্য একটি স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলে তার স্বপ্ন পূরণ করুক ।

(ঢাকাটাইমস/১১ফেব্রুয়ারি/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাড়িতে ভাঙচুর-আগুন

বোয়ালমারীতে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল বৃদ্ধের

সিরাজগঞ্জে হত্যা চেষ্টা মামলার বিচারের দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

পবিপ্রবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ, দাবি আদায় পর্যন্ত আন্দোলন চলবে

বোয়ালমারীর শেখর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পায়নি জেলা প্রশাসন

বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়ক অবরোধ ববি শিক্ষার্থীদের

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে স্কুল-কলেজ শিক্ষার্থীদের ‘সোনারগাঁ ব্লকেড’ পালন

কোটা সংস্কার আন্দোলন: চট্টগ্রামে ছাত্রলীগের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ৩

কুমিল্লায় পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর

ফেনীতে শিক্ষার্থীদের সমর্থনে মানববন্ধন, ছাত্রলীগের হামলা

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :