এবারও নৌকা পেলেন না সুলতান মনসুর, তবে কি রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের পরিসমাপ্তি?

আব্দুল বাছিত বাচ্চু, মৌলভীবাজার
 | প্রকাশিত : ২৭ নভেম্বর ২০২৩, ০৯:০৪

মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসন থেকে এবারও নৌকা পেলেন না আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও গণফোরাম থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। তার আসনে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছে দলের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলকে। আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা সুলতান মনসুর গত নির্বাচনে গণফোরাম থেকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের হয়ে নির্বাচন করে জয়লাভ করেন। আওয়ামী লীগের রাজনীতি থেকে আড়ালে চলে যাওয়া এই ডাকসাইটের নেতা দীর্ঘদিন ধরে নৌকা পাবেন কি না তা নিয়ে আলোচনা চলছিলো।

আওয়ামী লীগের সাবেক সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ এর রয়েছে বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ক্যারিয়ার। ১৯৭০ সাল থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতি করে আসছেন সুলতান মনসুর। ১৯৭৫-৯০ সাল পর্যন্ত ছিলেন ছাত্রলীগের অন্যতম নীতিনির্ধারকদের একজন। ১৯৮৭ সালে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং ১৯৮৯ সালে ডাকসুর ভিপি নির্বাচিত হন। পরে ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে কুলাউড়া আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন। ২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারি দেশে জরুরি অবস্থা জারি হয়।ওয়ান ইলেভেনের সরকার মাইনাস টু ফরমুলা নিয়ে এগিয়ে গেলে আলোচনায় আসে সুলতান মনসুরের নাম। পরে আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গ্রেপ্তার হলে এই বিতর্ক জোরালো হয়। পরবর্তীতে দেশের স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরে এলে ২০০৮ সালের ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে প্রথম আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়েন সুলতান মনসুর। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে আওয়ামী লীগের সব কমিটি থেকে তাকে বাদ দেওয়া হয়। ২০০৮ ও ২০১৪ সালের নির্বাচনে প্রার্থী না হলেও ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঐক্যফ্রন্টের হয়ে ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করা মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসনের সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ। বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নির্বাচিত হয়েছিলেন সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। গণফোরাম থেকে নির্বাচিত হলেও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তার প্রতীক ছিল ধানের শীষ।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য ও ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ ঐক্যফ্রন্টের ব্যানারে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন। ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করে এমপি হয়েই তিনি নতুন বিতর্কের জন্ম দেন। জয় বাংলা ও জয় বঙ্গবন্ধুকে ভুলে যাননি সুলতান মনসুর। নির্বাচনের সময় ধানের শীষে ভোট চাইলে বিএনপির নেতাকর্মীরা তার জন্য জানপ্রাণ দিয়ে মাঠে কাজ করেন। তবে নির্বাচনের পরই তিনি সুর পাল্টে বলেন, তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করেন। তিনি আওয়ামী লীগ ছেড়ে যাননি বরং আওয়ামী লীগেই আছেন। ‘আমি আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন চাইব, নৌকা পেলে নির্বাচন করব, না পেলে নীরব থাকব।’ সুলতান মনসুর আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা হলেন দলের সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী। তিনি মনোনয়ন দিলে নির্বাচন করব। না দিলে তার সিদ্ধান্ত মেনে নেব।’ এই অবস্থায় তার আসনে মনোনয়ন দেওয়া হলো আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল কে।

এখন উপজেলার কৌতূহলী মানুষের দেখার অপেক্ষা, তিনি কী করেন। নাকি এখানেই তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের সমাপ্তি।

এ বিষয়ে তার বক্তব্য নেওয়ার জন্য অনেক চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। অনুসারীরা বলছেন মনোনয়ন না পাওয়ার খবরে তিনি অনেকটা ভেঙে পড়েছেন।

(ঢাকাটাইমস/২৭নভেম্বর/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

রাজনীতি এর সর্বশেষ

এবার নজর মেজর হাফিজে

মির্জা ফখরুলের সঙ্গে গণতন্ত্র মঞ্চ ও ১২ দলের বৈঠক

সরকার জনগণের সঙ্গে নিষ্ঠুর রসিকতা করছে : মান্না

অবশেষে বিদেশে সম্পদ থাকার কথা স্বীকার করলেন সাইফুজ্জামান চৌধুরী

ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটির আনন্দ মিছিল

শুধু বেইলি রোড নয়, ত্রাসের রাজত্বে পুরো দেশই মৃত্যু উপত্যকা: ববি হাজ্জাজ

দুর্ঘটনায় সরকার মানুষ বাঁচাতে পারে না, সিন্ডিকেট বাণিজ্য করে মারতে পারে: এবি পার্টি

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির গণবিরোধী সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে: হেলাল উদ্দিন

নতুন রাজনৈতিক দল গণতান্ত্রিক সংস্কার পার্টি’র আত্মপ্রকাশ

বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে মিরপুরে জামায়াতের বিক্ষোভ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :