বাঁচানো গেল না শেরপুরের জোড়া শিশুকে

ঝিনাইগাতী (শেরপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ জুলাই ২০১৮, ১৮:১৬

সাত দিন শেরপুর হাসপাতাল থেকে শুরু করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পর্যন্ত আপ্রাণ চেষ্টা করেও বাঁচানো গেল না শেরপুরে জমজ দুই শিশু কন্যাকে। ‘বেলা’ ও ‘সুন্দরী’ শনিবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায়।

শেরপুরের চাপাতলী এলাকার গরিব রিকশাচালক রুবেল মিয়ার স্ত্রী রেহেনা বেগম (২২) গত ৭ জুলাই (শনিবার) সকাল ৯টার দিকে শহরের মাধবপুর ফ্যামিলি নার্সিং হোমে মাথা জোড়া লাগানো ওই জমজ কন্যা শিশুর জন্ম দেন। সিনিয়র গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. আব্দুল গণি সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে কোনো ধরনের জটিলতা ছাড়াই শিশু দুটিকে ভূমিষ্ট করাতে সক্ষম হন। কিন্তু যমজ শিশু দুটির জটিল অবস্থা দেখে ডা. আব্দুল গণি উন্নত চিকিৎসার জন্য সার্জিক্যাল অপারেশনের জন্য ভালো হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন।

পরে শিশু দুটিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

শিশু দুটির নানা আমিনুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে বলেন, যমজ শিশু দুটিকে বাঁচানোর জন্য সবাই আমাদের সহায়তা করেছে। ডাক্তাররা আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন। চেষ্টার পরেও তাদের বাঁচানো সম্ভব হলো না।

(ঢাকাটাইমস/১৪জুলাই/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত