‘জামানত ছাড়াই’ ব্যবসা করছে মির্জাপুরের মা সিএনজি ফিলিং স্টেশন

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ মার্চ ২০১৯, ১৬:০৭

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার একমাত্র সিএনজি ফিলিং স্টেশন ‘মা সিএনজি ফিলিং স্টেশন’। কিন্তু জামানত ও বিলের সোয়া তিন কোটি টাকা বকেয়া পরিশোধ না করার অভিযোগ রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে। তারপরও ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে এই প্রতিষ্ঠান।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ জানায়, ‘২০১৫ সালে প্রথম দফায় সরকার গ্যাসের বৃদ্ধি পেলে প্রতিষ্ঠানটির জামানত বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়ায় এক কোটি ১১ লাখ ১৭ হাজার ৪২৮ টাকা। ওই টাকা পরিশোধের জন্য ২০১৫ সালে লিখিতভাবে তাদের জানানো হয়। কিন্ত মা সিএনজি কর্তৃপক্ষ জামানতের টাকা পরিশোধ করেনি এবং লিখিতভাবে কোন সময়ও প্রার্থনা করেনি।

পরবর্তীতে দ্বিতীয় দফায় ২০১৮ সালে সরকার গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করলে প্রতিষ্ঠানটির জামানতের পরিমাণ দাঁড়ায় দুই কোটি আট লাখ ৮৯ হাজার ৯০০ টাকা। কিন্ত এক বছর পেরিয়ে গেলেও সে টাকাও তারা জমা দেয়নি এবং কোন লিখিত আবেদনও করেনি।

চলতি বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি দুই মাসের গ্যাস বিল বাবদ প্রতিষ্ঠানটির কাছে বকেয়া রয়েছে এক কোটি ২৬ লাখ ৮৭ হাজার ৩৫৪ টাকা। 

জামানতের দুই মাসের বকেয়া বিলসহ প্রতিষ্ঠানটির কাছে বর্তমানে তিতাস গ্যাসের পাওনা তিন কোটি ৩৫ লাখ ৭৭ হাজার ২৫৪ টাকা।’

প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইব্রাহিম মিয়া জানান, ‘বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিকালে জানুয়ারি মাসের বকেয়া ৬০ লাখ টাকা বিল পরিশোধ করা হয়েছে।’

জামানতের টাকার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অন্য দশটি সিএনজি স্টেশন যেভাবে চলছে- তারটাও সেভাবেই চলছে।’

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল তিতাস গ্যাস অফিসের ব্যবস্থাপক মামুনুর রহমান বলেন, ‘এ বিষয়ে শিগগির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

(ঢাকাটাইমস/৭মার্চ/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :