দুদকের মামলায় বিমানের চার কর্মকর্তার কারাদণ্ড

আদালত প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২২ জুলাই ২০১৯, ১৭:৩৬ | প্রকাশিত : ২২ জুলাই ২০১৯, ১৭:৩৪
ফাইল ছবি

ভুয়া বিল-ভাউচার তৈরি ও অর্থ পরিশোধ দেখিয়ে টাকা আত্মসাতের মামলায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বেতন শাখার চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে আদালত।

আজ সোমবার ঢাকার চার নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শেখ নাজমুল আলম এ রায় দেন।
দণ্ডিতরা হলেন- বিমানের বেতন শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জিন্নাহ, ক্যাশ অ্যান্ড ব্যাংকিং শাখার সহকারী ব্যবস্থাপক এম এ রব, হিসাব তত্ত্বাবধায়ক মো. হারুন অর রশিদ ও এম এ এস টি চৌধুরী (মীর আবু সাঈদ তাইফুদ্দিন চৌধুরী)।

তাদের মধ্যে জিন্নাহ, হারুন অর রশিদ (পলাতক) এবং এম এ এস টি চৌধুরীকে সাত বছর করে কারাদণ্ডের পাশাপাশি ২৫ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।

আর আসামি রবকে ৫ বছর কারাদণ্ড এবং ১৫ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়।
আদালতে রায় ঘোষণার সময় উপস্থিত তিনজনকে পরে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০০১ সালের জুলাই থেকে ২০০২ সালের জুন পর্যন্ত বিমানের বিভিন্ন কর্মকর্তা-কর্মচারী বিদেশে ভ্রমণ শেষে টিএ/ডিএ বিল উত্তোলনের পর একই ভ্রমণের অনুমতিপত্র ফটোকপি করে এবং কোনো কোনো ক্ষেত্রে কার্বনকপিতে কাটাকাটি করে টাকার পরিমাণ বাড়ান আসামিরা। এভাবে একাধিক ভুয়া ও জাল পরিশোধ ভাউচার বানিয়ে ১৬৬টি ভুয়া পরিশোধ ভাউচারের মাধ্যমে ২৮ লাখ ৫৮ হাজার ৪৪১ টাকা আত্মসাৎ করা হয়।

ওই ঘটনায় ক্যাশ অ্যান্ড ব্যাংকিং শাখার সাবেক অ্যাকাউন্টস অফিসার মীর আজিজুর রহমান ও দণ্ডপ্রাপ্ত ওই চার আসামিসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে দুদকের উপপরিচালক বেনজীর আহম্মদ ২০১০ সালের ৫ সেপ্টেম্বর মামলাটি করেন। মামলা তদন্ত করে একই কর্মকর্তা ২০১৪ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি পাঁচজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন।

২০১৬ সালের ২৮ জানুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেয় আদালত। বিচারকাজ চলাকালে আসামি মীর আজিজুর রহমান ২০১৮ সালের ১৮ নভেম্বর মারা যান।

(ঢাকাটাইমস/২২জুলাই/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :