কুমিল্লা উত্তর আ.লীগ সম্মেলন

যে কারণে এগিয়ে রোশন আলী মাস্টার

কুমিল্লা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৪:০৪ | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৩:৩৮
রোশন আলী মাস্টার

এক-এগারোতে রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের পর ঝড় এসেছিল রাজনীতিকদের জীবনে। মামলা-হামলায় হয়রানি করা হয়েছে তাদের। শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে দলীয় চেতনার বিরুদ্ধে অনৈতিক প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে। কেউ প্রাণের ভয়ে মেনে নিয়েছেন। কেউ মৃত্যুকে তুচ্ছজ্ঞান করে অটল রয়েছেন নিজের রাজনৈতিক আস্থা-বিশ্বসে। কুমিল্লার উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রোশন আলী মাস্টার তাদের একজন। দলীয় আদর্শের প্রশ্নে পরীক্ষায় তিনি উত্তীর্ণ হয়েছেন বারবার। এই মন্তব্য কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের।

তারা বলেছেন, ২০০১ সালের বিএনপি-জামায়াত জোট আমলেও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন রোশন আলী মাস্টার। তবুও দলীয় আদর্শ থেকে পিছ পা হননি। আর এ কারণেই ৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য দলের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে এগিয়ে রেখেছেন তাকে।

কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি এডভোকেট নিজামুল হক বলেন,  বিগত সময়ে দলের জন্য রোশন আলী মাস্টারের অনেক ত্যাগ রয়েছে। তাকে বিএনপি-জামায়াত ক্যাডারদের হাতে অনেকবার নির্যাতিত হতে হয়েছে। মিথ্যা মামলায় কারাগারে যেতে হয়েছে। এসব বিষয় দলের সভানেত্রী  ও কেন্দ্রীয় নেতারা অবগত আছেন। তাই তাকে সাধারণ সম্পাদক করা হলে দলের সাংগঠনিক কর্মকান্ড আরও বেগবান হবে বলে আশা করি।

৯ ডিসেম্বর কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন। জেলার চান্দিনা মহিলা কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হবে ওই সম্মেলন। এরই মধ্যে সব প্রস্তুতি শেষ করেছে দলটি।

যোগ্য নেতার হাতে সঠিক নেতৃত্ব আসুক উল্লেখ করে জ্যেষ্ঠ আওয়ামী লীগ নেতা ও দেবিদ্বার এস এ সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি এটিএম মেহেদী হাসান বলেন, ‘সম্মেলনে অনেকেই শীর্ষ পদের প্রত্যাশা করেন। কিন্তু দলের দুঃসময়ে যে নেতারা  কর্মীদের খবর রাখে না  এমন নেতাদের আমরা কমিটিতে চাই না। রোশন আলী মাস্টার বিপদে-আপদে সব সময় সাধারণ নেতাকর্মীদের পাশে ছিলেন, এখনো আছেন। তিনি দলের সাধারণ সম্পাদক হলে সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের মনের প্রত্যাশাপূরণ হবে।’

তরুণ প্রজন্মের মধ্যেও সমানভাবে জনপ্রিয় রোশন আলী মাস্টার। তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এনিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছে। তরুণরা মনে করে, দলের অনেক প্রবীণরা তরুণদের সঙ্গে মিশতে পারেন না। সেই দিক থেকে রোশন আলী মাস্টার ব্যতিক্রম। তিনি তরুণদের মনের ভাষা বোঝেন। তাদের মিলেমিশে পথ চলতে পারেন। কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগে এমন নেতৃত্বের বিকল্প নেই। 

দলের নেতাকর্মীরা বলেন, এখন দলের সুসময়, পদের দাবি নিয়ে অনেকেই তদবির করছেন। কিন্তু অতীতে বিএনপি-জামায়াতের দমন, নিপীড়ন, মিথ্যা মামলা ও হামলার সময় কাউকে খুঁজে পাওয়া না গেলেও  মৃত্যুর মুখে পড়েও মাঠ ছাড়েননি রোশন আলী মাস্টার। ২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত নেতাকর্মীদের নিয়ে অন্তত ২ ডজনেরও বেশি মিথ্যা মামলার আসামি হয়েছেন। একাধিকবার কারাবরণ করেছেন। দল নিশ্চয়ই এর প্রতিদান দেবে বলে প্রত্যাশা করেন তারা।

জানতে চাইলে রোশন আলী মাস্টার বলেন, ‘বুঝতে শেখার পর থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকেই জীবনের আদর্শ বলে মেনে নিয়েছি। অনেক ঝড়-ঝঞ্ঝা এসেছে। মাথা পেতে নিয়েছি। অন্যায়ের সঙ্গে আপোস করিনি। বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের ছায়াতলে আছি। ভবিষ্যতেও থাকবো। নেত্রী যদি আমাকে এবারের সম্মেলনে দলের সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব দেন, তাহলে আমি তার আস্থা ও বিশ^াসের মর্যাদা রাখতে পারবো বলে বিশ্বাস করি।’

(ঢাকাটাইমস/ প্রতিনিধি/ এইচএফ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :