খালেদার জামিন না হওয়ায় জনগণ ক্ষুব্ধ: ফখরুল

কক্সবাজার প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৭:০৩

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন উচ্চ আদালতে আবার নাকচ হয়ে যাওয়ায় জনগণ আশাহত এবং ক্ষুব্ধ বলে দাবি করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। খালেদা জিয়াকে বেআইনিভাবে আটকে রাখা হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

শুক্রবার দুপুরে কক্সবাজারে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। এদিন তিনি রামু সীমা মহাবিহার সংলগ্ন মেরংলোয়া মাঠে একুশে পদকপ্রাপ্ত বৌদ্ধ ধর্মীয় গুরু উপ-সংঘরাজ পণ্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথেরর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের জামিন বাতিল হওয়া প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, ‘মিথ্যা মামলায় কারান্তরীণ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন। তিনি এখন হাঁটতে পারেন না, দাঁড়াতে পারেন না। এজন্য বিএনপির পক্ষ থেকে আদালতে তার জামিন চাওয়া হয়েছে। আদালত খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর করাতে জনগণ আশাহত ও ক্ষুব্ধ হয়েছে।’

ফখরুল বলেন, ‘বিএনপি একটি গণতান্ত্রিক দল। তাই আমরা গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাসী। সরকার বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা, মামলা ও নিপীড়ন এখনো অব্যাহত রেখেছে। তারই ধারাবাহিকতায় বেগম খালেদা জিয়াকে বেআইনিভাবে ও একটি মিথ্যা মামলায় কারাগারে আটকে রেখেছে।’ সরকার দেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করার চেষ্টা চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

ভারতে কয়েক দিন ধরে চলা সহিংসতা প্রসঙ্গে ফখরুর বলেন, ‘ভারতের দাঙ্গা আমাদের দেশে আঞ্চলিক শান্তি, সৌহার্দ্য ও সহযোগিতার জন্য অন্তরায় হয়ে দাঁড়াবে। আমরা আশা করি ভারত তার দেশের জনগণের কথা চিন্তা করে এনআরসি সমস্যা সমাধান করবে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থানীয় কমিটির সদস্য আমির খসরু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. সুকোমল বড়ুয়া, সাবেক সংসদ সদস্য লুৎফুর রহমান কাজল প্রমুখ।

এর আগে মির্জা ফখরুল প্রয়াত সত্যপ্রিয়র মরদেহে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন। রামু সীমা মহাবিহারের অধ্যক্ষ উপ-সংঘরাজ পণ্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের গত ৪ অক্টোবর ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। বৌদ্ধ ধর্মীয় রীতিনীতি অনুসারে ১৪৮ দিন তার মরদেহ সংরক্ষণের পর দাহক্রিয়া সম্পাদন করা হবে। এ উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান।

(ঢাকাটাইমস/২৮ফেব্রুয়ারি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :