ডাক্তার না হলেও চেম্বার খুলে রোগী দেখতেন তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ মার্চ ২০২০, ১৮:০৪

একজন পাস করেছেন মাত্র এসএসসি। অন্য একজন মাদরাসা থেকে ফাজিল (ডিগ্রী) পাস করেছেন। এরপরই নেমে পড়েছেন চিকিৎসার মতো মহৎ পেশায়। দীর্ঘদিন ধরে দাঁতের চিকিৎসা দিচ্ছিলেন রীতিমত চেম্বার খুলে। তবে বিধি বাম। তাদের এই অপচিকিৎসার খবর পৌঁছে যায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ানের (র‌্যাব) কাছে।

শনিবার দুপুরে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার সুবিদখালী বাজারে অভিযান চালিয়ে এই দুই ভুয়া চিকিৎসককে আটক করেছে র‌্যাব। অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া র‌্যাব-৮ এর কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইছ উদ্দিন।

ঢাকা টাইমসকে অভিযানের বিষয়ে নিশ্চিত করে তিনি জানান, আটক দুই ভুয়া চিকিৎসক হলেন- পলক ডেন্টাল কেয়ারের স্বত্বাধিকারী সুদীপ্ত মজুমদার ও হক নূর ডেন্টাল কেয়ারের স্বত্বাধিকারী মো. আবুল কালাম আজাদ। তাদের মির্জাগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এদের বিরুদ্ধে র‌্যাব বাদি হয়ে মামলা করবে বলেও জানিয়েছেন বাহিনীটির এই কর্মকর্তা।

মির্জাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. মো. মেহেদী হাসান আটককৃতদের ভুয়া চিকিৎসক বলে নিশ্চিত করেন।

র‌্যাব কর্মকর্তা রইছ উদ্দিন বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সুবিদখালী বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটকরা চিকিৎসা শাস্ত্রে কোনো প্রকার ডিগ্রি অর্জন না করেও নিজেদেরকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে দাঁতের বিভিন্ন ধরনের জটিল রোগের চিকিৎসা করেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আটক সুদীপ্ত মজুমদার এসএসসি পাস করে নিজেকে দন্তরোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে পরিচয় দেন। আর মো. আবুল কালাম আজাদ মাদরাসা থেকে ফাজিল পাস করে নিজেকে একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসেবে পরিচয় দেন।

(ঢাকাটাইমস/১৪মার্চ/বিইউ/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :