ইতালিতে আক্রান্তদের পাশে বাংলাদেশি কমিউনিটি

ইউরোপ ব্যুরো
| আপডেট : ২৯ মার্চ ২০২০, ১৮:৫১ | প্রকাশিত : ২৯ মার্চ ২০২০, ১৬:৫৩

ইতালিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছে মিলানে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা। ইতালিয়ান সরকারকে এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের সহযোগিতার উদ্দেশ্যে অনলাইনের মাধ্যমে অনুদান সংগ্রহ করা শুরু করেছে মিলানে বসবাসরত একদল তরুণ যুবক।

এ প্রসঙ্গে অনুদান সংগ্রহের প্রধান সমন্বয়কারী ইঞ্জিনিয়ার ফিরোজ আলম বলেন, ইতালিয়ান সরকারকে এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের সহযোগিতা করার জন্য আমরা আর্থিক অনুদান সংগ্রহের উদ্যেগ নিয়েছি। করোনাভাইরাসের রোগীদের জন্য সেবা, যন্ত্রপাতি এবং প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি ক্রয় এবং স্বাস্থ্যসেবা খাতে বিতরণ করার জন্য আমরা এই অনুদান ইতালিয়ান সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করবো।

সে ক্ষেত্রে আমাদের প্রত্যেকের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সহযোগিতায় আমরা বাংলাদেশি প্রবাসীদের সুনাম বৃদ্ধির পাশাপাশি ইতালির পাশে দাঁড়াতে পারব। ইতালির বাণিজ্যিক রাজধানী মিলানোতে বসবাসের সুবাদে এবং প্রথম আক্রান্ত এলাকাগুলোর মধ্যে অন্যতম হওয়ায় এ অঞ্চলের প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে বিরাজ করছে চরম উৎকণ্ঠা ও ভয়।

ইতোমধ্যে আমাদের কমিউনিটির বেশ কয়েকজন লোক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এবং হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন আছে। এই চরম সংকটাপন্ন মুহূর্তে বাংলাদেশ কমিউনিটি যেমন দুঃসময় পার করছে, তেমনি ইতালি সরকারও এই সঙ্কটাপন্ন সময় পার করার জন্য আপ্রান চেষ্টা করে যাচ্ছে। এই সংকটময় মুহূর্তে ইতালি সরকার এবং জনগণের পাশে দাঁড়ানো আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। কারণ অদ্যাবধি আমাদের ইতালিতে অবস্থান এবং বৈদেশিক মুদ্রা পাঠিয়ে বাংলাদেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখাতে ইতালি সরকার ও জনগণের সহায়তা প্রাপ্তি এক বিশাল ভূমিকা রেখেছে। আমরা প্রবাসী বাংলাদেশিরাই একেকজন বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করি। ইতালিতে করোনা সংক্রান্ত সমস্যা ছাড়াও অতিশীঘ্রই এর প্রভাবে অধিকাংশ প্রবাসী বাংলাদেশি মারত্মক অর্থসঙ্কট ও চাকরি হারাবেন বা ব্যবসা ক্ষেত্রে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। করোনা ভাইরাসের এই সময় এবং পরবর্তীতে সংকট উত্তরণের জন্য কিছু উদ্যোগ নেয়া এবং সমন্বয়ের কাজ করতে আমরা মিলান প্রবাসী সবাইকে ঐক্যবধ্যভাবে কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছি। উদ্যোগগুলো হলো:

১) এই সংকটকালীন সময়ে ঐক্যবদ্ধভাবে ইতালির পাশে দাঁড়াবো। অর্থনৈতিক সহযোগিতার পাশাপাশি যদি সম্ভব হয় মেডিকেল ইকুইপমেন্ট ও অতি আবশ্যক মাস্কসহ রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে সহযোগিতা করব।

২) আপদকালীন সময় বাংলাদেশ কমিউনিটির পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাস মনিটরিং সেল এবং তার সমন্বয়ের ব্যবস্থা করা।

৩) সচ্ছল এবং ইচ্ছুক দাতাদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে একটা আপদকালীন ফান্ড গঠন করা।

৪) করোনার প্রভাবে যেসব ভাই-বোন সম্পূর্ণভাবে বেকার হয়ে যাবেন, তাদের কর্মসংস্থান ও আপদকালীন সময়ে সহযোগিতার হাত বাড়ানো।

৫) করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়ানো ও অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা করা।

৬) সরকারি বিভিন্ন প্রজ্ঞাপন ও বিধিনিষেধ সংক্রান্ত তথ্য দ্রুত জানানোর ব্যবস্থা করা।

সব বিষয়ে দ্রুত যোগাযোগ নিশ্চিত করার জন্য ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে যোগাযোগ করার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

প্রাথমিক করোনা ভাইরাস মনিটরিং সেল (ভলান্টিয়ার):

১) ইঞ্জিনিয়ার মোঃ ফিরোজ আলম, টেলিফোন: 3348500960

২) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির (রোম)টেলিফোন : 328 6829323

৩) কমরেড খোন্দকার, টেলিফোন 3801232714

৪) আব্দুল বাসিত দলই, টেলিফোন 3668007799

৪) আব্দুল কাইয়ুম মামুন, টেলিফোন 3294530736

৫) তুহিন মাহমুদ, টেলিফোন 3891739707

৬) ফেরদৌসি পলি, টেলিফোন 3273353075

৭) নাজমুল হোসাইন, টেলিফোন 3898255529

https://www.gofundme.com/url_shortener/u/xtd8hm

মিলান লোম্বার্দিয়ায় বসবাসরত সব প্রবাসী বাংলাদেশিসহ ইতালিতে বসবাসরত বাংলাদেশিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এই মানবিক আহ্বানে সাড়া দেয়ার উদাত্ত আহ্বান জানান উদ্যোক্তারা।

(ঢাকাটাইমস/২৯মার্চ/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :