ওয়ালটনের বড় ডিসপ্লের ফোন বাজারে

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৭, ১৬:৫৩

বড় ডিসপ্লের স্মার্টফোন এনেছে ওয়ালটন। এটি ফ্যাবলেট ঘরানার।  ‘প্রিমো এন৩’ মডেলের নতুন এই ফোনের ডিসপ্লে ৬ ইঞ্চির। ডিসপ্লেতে আইপিএস এইচডি প্রযুক্তির ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে মুভি দেখা, গেম খেলা, বই পড়া বা ইন্টারনেট ব্রাউজিং হবে আরো আনন্দময়।

দেশের সব ওয়ালটন প্লাজা ও ব্রান্ডেড আউটলেটে পাওয়া যাচ্ছে নতুন এই ফোন। এর দাম  ১০ হাজার ২৯০ টাকা।

গ্রাহকদের চাহিদা ও রুচির ভিন্নতা অনুযায়ী ফোনটি মিলছে কালো, সোনালি ও কফি-এই তিনটি ভিন্ন রঙে। থাকছে এক বছরের বিনামূল্যের বিক্রয়োত্তর সেবা।

ওয়ালটনের সেল্যুলার ফোন গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর আরিফুল হক রায়হান জানান, ৫ ইঞ্চির বড় কিন্তু ৭ ইঞ্চির ছোট পর্দার স্মার্টফোনকে ফ্যাবলেট বলে। ফ্যাবলেটের ডিসপ্লে তুলনামূলকভাবে বড় হওয়ায় বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারে ও ভিডিও দেখায় বাড়তি সুবিধা পাওয়া যায়। বড় পর্দার ‘প্রিমো এন৩’  স্মার্টফোনকে ফ্যাবলেট বলা চলে। এর ডিসপ্লে বড় হওয়ায় কাজ বা বিনোদনে মিলবে আনন্দময় অভিজ্ঞতা। মেটালিক ডিজাইনের ৮.৬ মিমি পুরুত্বের পাতলা এই ফোনটি দেখতেও দারুণ আকর্ষণীয়।

তিনি জানান, নতুন এই ফোনের উচ্চগতি নিশ্চিতে ব্যবহৃত হয়েছে ১.৩ গিগাহার্জের কোয়াড কোর প্রসেসর। উন্নত পারফরমেন্সের জন্য এতে আছে ২ গিগাবাইট র‌্যাম। গ্রাহককে উন্নতমানের গেমিং ও স্পষ্ট ভিডিওর অভিজ্ঞতা দিতে গ্রাফিক্স হিসেবে আছে মালি-৪০০। প্রয়োজনীয় ফাইল সংরক্ষণে রয়েছে ১৬ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ মেমোরি। যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ফলে অনেক বেশি ছবি, ভিডিও, ডকুমেন্টস ইত্যাদি সংরক্ষণ করা যাবে।

এই ফোনের পেছনে আছে এলইডি ফ্ল্যাশসহ বিএসআই সেন্সরযুক্ত এফ ২.২ অ্যাপারচার সাইজের ১৩ মেগাপিক্সেলের অটোফোকাস ক্যামেরা। উত্তম সেলফি তোলার এই স্মার্টফোনের ফ্রন্টে রয়েছে বিএসআই ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরায় নরমাল মোড ছাড়াও ফেস বিউটি, ফেস ডিটেকশন, ডিজিটাল জুম, সেলফ-টাইমার, এইচডিআর, প্যানোরমা, সিন মোডসহ বিভিন্ন আকর্ষণীয় মোডের সঙ্গে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরের মাধ্যমেও ছবি তোলা যাবে। উভয় ক্যামেরার ফেস বিউটি ফিচার গ্রাহককে দেবে দাগমুক্ত মসৃণ ও উজ্জ্বল মুখম-লের ছবি। ছবির স্বাভাবিক রঙ ঠিক থাকবে। ছবি হবে স্পষ্ট ও নিখুঁত।

‘প্রিমো এন৩’ ফোনের সুরক্ষায় যুক্ত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। যার মাধ্যমে আঙ্গুলের ছোঁয়ায় মাত্র ০.২ সেকেন্ডেই ফোনটি আনলক করা যাবে। ফলে স্ক্রিন আনলকে পাসওয়ার্ড টাইপ করা বা প্যাটার্ন আঁকার প্রয়োজন পড়বে না। ব্যবহারকারী ছাড়া আর কেউ ফোন আনলক করতে পারবে না। মাল্টিটাচ সুবিধায় ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর হিসেবে পাঁচ আঙ্গুলের ব্যবহার করা যাবে। মিরা ভিশন ডিসপ্লে প্রযুক্তি ব্যবহার করায় ছবি ও ভিডিওর কালার হবে ভাইব্রান্ট ও বৈচিত্রময়।

ডুয়াল সিম সুবিধার ফোনটি থ্রিজি সমর্থন করে। অ্যানড্রয়েডের  সবচেয়ে উন্নত সংস্করণ নুগাট ৭.০ অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত হওয়ায় এই ফোনের কার্যক্ষমতা ও গতি হবে বেশি। একই সঙ্গে পাওয়া যাবে দারুণ কিছু অতিরিক্ত ফিচার। ডুরা স্পিড প্রযুক্তি অব্যবহৃত অ্যাপস ইনঅ্যাকটিভ করে রাখবে। ফলে ফোনের গতি ও পারফরমেন্স বাড়বে এবং ব্যাটারি সাশ্রয় হবে। মাল্টি-উইন্ডো প্রযুক্তি থাকায় একই সঙ্গে ডিসপ্লেতে একাধিক অ্যাপস ব্যবহার করা যাবে।

দীর্ঘসময় পাওয়ার-ব্যাকআপের জন্য এতে আছে ৩৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লি-পলিমার ব্যাটারি। এর ইন্টিগ্রেটেড ব্যাটারি সেভার ফিচার ব্যাটারির চার্জ সাশ্রয় করবে।

এই ফোনের কানেক্টিভিটির জন্য রয়েছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভার্সন ৪, মাইক্রো ইউএসবি ২, হটস্পট, ওটিএ ইত্যাদি। মাল্টিমিডিয়া ফিচার হিসেবে আছে ফুল এইচডি ভিডিও প্লে-ব্যাক-এর সুবিধা এবং রেকর্ডিংসহ এফএম রেডিও।

(ঢাকাটাইমস/১৫জুন/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত