টাঙ্গাইলে কাদের সিদ্দিকীসহ ১৩ প্রার্থিতা বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক, টাঙ্গাইল
| আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:৪২ | প্রকাশিত : ০২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:২১

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আব্দুল কাদের সিদ্দিকীরসহ টাঙ্গাইলে ১৩ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। ঋণখেলাপিসহ বিভিন্ন ত্রুটি থাকায় তাদের প্রার্থিতা বাতিল হয়।

কাদের সিদ্দিকী টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) এবং টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। প্রার্থিতা বাতিলের তালিকায় টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে বিএনপির ফকির মাহবুব আনাম স্বপন, টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার) আসনে বিএনপির নুর মোহাম্মদ খানও রয়েছেন। ঋণখেলাপির কারণে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।

মনোনয়ন বাতিল হওয়া অন্যরা হলেন টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনে ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. চান মিয়া, বিএনএফের আতাউর রহমান, টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী বাকির হোসেন ও আবুল কাশেম, টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার) আসনে মামুনুর রহমান(এনপিপি) ও বিএনএফের প্রার্থী সুলতান মাহমুদ, টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনে খেলাফত মজলিসের প্রার্থী সৈয়দ মজিবুর রহমান, টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনে জাতীয় পার্টির কাজী আশরাফ সিদ্দিকী, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আবদুল লতিফ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী শহিদুল ইসলাম।

টাঙ্গাইলের জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম রবিবার দুপুরে যাচাই-বাছাইয়ের পর ঋণখেলাপিসহ বিভিন্ন ত্রুটির কারণে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এসব মনোনয়নপত্র বাতিল করেন।

টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে যাচাই-বাছাইয়ের সময় কাদের সিদ্দিকীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সোনার বাংলা প্রকৌশল সংস্থা ঋণখেলাপির তালিকায় আছে বলে অগ্রণী ব্যাংক টাঙ্গাইল শাখার সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. নাজিম উদ্দিন রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানান। এ সময় কাদের সিদ্দিকীর বক্তব্য জানতে চান রিটার্নিং কর্মকর্তা। কাদের সিদ্দিকী বলেন, আমার বলার তেমন কিছু নেই। অনেক বড় অর্থশালী মানুষ সালমান এফ রহমানের চার হাজার ৫৪৩ কোটি টাকা ২৫ বছরের জন্য বিনা সুদে ব্লক করা আছে। এটা সত্য যে ব্যাংক আমাদের কাছে টাকা পায়, আমরা সে টাকা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত আছি। এ নিয়ে তিনবার ভোটে দাঁড়ানো থেকে বঞ্চিত হলাম। কাদের সিদ্দিকী আরও বলেন, যা হয়েছে সব সরকারের ইচ্ছাতেই হয়েছে। তিনি এ ব্যাপারে আপিল করবেন বলে জানান।

এদিকে কাদের সিদ্দিকীর মনোনয়ন বাতিল হলেও টাঙ্গাইল-৮ আসনে তার মেয়ে কুঁড়ি সিদ্দিকী এবং কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদারের মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে। এ ছাড়া টাঙ্গাইল-৪ আসনে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থী কাদের সিদ্দিকীর ছোট ভাই আজাদ সিদ্দিকী ও লিয়াকত আলীর মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে।

এ ছাড়া কাদের সিদ্দিকীর বড় ভাই আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সাবেক সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী টাঙ্গাইল-৪ আসনে এবং ছোট ভাই মুরাদ সিদ্দিকী টাঙ্গাইল-৫ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন। তাদের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/০২ডিসেম্বর/আরকে/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :