মসজিদে মসজিদে গুজববিরোধী খুতবা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৬ জুলাই ২০১৯, ১৮:০২

ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে বেশ কয়েকজন নিহত হওয়ার পর এ ব্যাপারে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার জুমার দিনে মসজিদে মসজিদে গুজবের বিরুদ্ধে খুতবা দিয়েছেন খতিবরা। তারা কোরআন-হাদিসের দৃষ্টিতে গুজবের অপকারিতা তুলে ধরেন।

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ ঢাকায় বিভিন্ন মসজিদে গুজব ও অপপ্রচারে বিরুদ্ধে বয়ান করেন খতিবরা। জনসাধারণকে এ ব্যাপারে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তারা। যেকোনো কথা শুনেই বিশ্বাস না করতে এবং যাচাই-বাছাই করতে কোরআন-হাদিসের নির্দেশনা মুসল্লিদের শোনান ইমাম সাহেবরা।  

এর আগে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী শুক্রবার জুমার নামাজের খুতবায় গুজববিরোধী বক্তব্য রাখতে সারাদেশের ইমামদের প্রতি আহ্বান জানান। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমেও সারাদেশে মসজিদে মসজিদে গুজববিরোধী বক্তব্যের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আমাদের প্রতিনিধিরা জানান, বিভিন্ন মসজিদে গুজবের বিরুদ্ধে খতিব সাহেবরা বক্তব্য দিয়েছেন।

সম্প্রতি পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা লাগবে এমন একটি গুজব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এর মধ্যেই নেত্রকোনায় একটি শিশুর কাটা মাথা পাওয়া যায় এক যুবকের ব্যাগে। এতে উত্তেজিত জনতা গণপিটুনি দিয়ে যুবককে হত্যা করে। তবে পরে পুলিশ জানায়, এই ঘটনার সঙ্গে পদ্মা সেতু গুজবের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। তবে নেত্রকোনার ঘটনাটি গুজবের ডালপালা আরও বিস্তার করে। অনেকে এই ঘটনার মাধ্যমে গুজবের সত্যতা প্রমাণের চেষ্টা করেন।

এর মধ্যেই ঢাকার বাড্ডায় এক নারীকে ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করে জনতা। এছাড়া সারাদেশে আরও বেশ কয়েকজন গণপিটুনিতে মারা যান। আহত হন অনেকে। পরিস্থিতি উদ্বেগজনক পর্যায়ে পৌঁছায় নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। গুজব ঠেকাতে প্রশাসনের নেয়ার বিভিন্ন পদক্ষেপের পাশাপাশি জনগণকে এ ব্যাপারে সচেতন করার পদক্ষেপ নেয়া হয়। এর অংশ হিসেবেই মসজিদে মসজিদে গুজববিরোধী খুতবা দেয়ার সিদ্ধান্ত আসে।

(ঢাকাটাইমস/২৬জুলাই/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

ইসলাম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :