আবরার হত্যায় যে চারজন পলাতক

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:৩২

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যায় চারজন আসামি পলাতক রয়েছেন। এরমধ্যে এজাহারভুক্ত ১৯ জনের তিনজন এবং ডিবি পুলিশের তদন্তে হত্যায় জড়িত আরও ছয়জনের মধ্যে একজন পলাতক।

পলাতক আসামিরা হলেন- বুয়েটের ইইই ১৬তম ব্যাচের জিসান, সিভিল ১৭তম ব্যাচের আজতেসামুল রাব্বি তানিম, মেকানিক্যাল ১৭তম ব্যাচের মোর্শেদ অর্মত্য ইসলাম ও ক্যামিকেল ১৬তম ব্যাচের মুসতুবা রাফিদ।

বুধবার আদালতে মামলার চার্জশিটে চারজনকে পলাতক দেখিয়ে অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়েছে। দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম।

মনিরুল বলেন, ‘আবরার হত্যাকাণ্ডের পর তার বাবা বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। এরমধ্যে ডিবি পুলিশ ১৬ জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। আর বাকি তিনজনকে এখনো গ্রেপ্তার করা যায়নি। তারা সবাই আত্মগোপনে রয়েছেন। এছাড়া মামলা তদন্ত করতে গিয়ে ডিবি পুলিশ হত্যা জড়িত আরও ছয়জনের সম্পৃক্ততা পেয়েছে। এর মধ্যে একজন বাদে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মোট ২৫ আসামির মধ্যে ২১জনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে এবং চারজন পলাতক দেখিয়ে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে।’

আলোচিত এই মামলায় এজাহারনামীয় আসামিরা হলেন-মেহেদী হাসান রাসেল, মো. অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মো. মেহেদী হাসান রবিন, মো. মেফতাহুল ইসলাম জিওন, মুনতাসির আলম জেমি, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির, মো. মুজাহিদুর রহমান, মুহতাসিম ফুয়াদ, মো. মনিরুজ্জামান মনির, মো. আকাশ হোসেন, হোসেন মোহাম্মদ তোহা, মো. মাজেদুল ইসলাম, শামীম বিল্লাহ, মোয়াজ আবু হুরায়রা ও এ এস এম নাজমুস সাদাত।

এজাহার বহির্ভূত পাঁচজন হলেন- ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, অমিত সাহা, মো. মিজানুর রহমান ওরফে মিজান, শামসুল আরেফিন রাফাত ও এস এম মাহমুদ সেতু।

গত ৬ অক্টোবর বুয়েটের শেরেবাংলা হলের একটি কক্ষে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নৃশংস পিটুনিতে মারা যান বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ। তিনি শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন।

(ঢাকাটাইমস/১৩নভেম্বর/এসএস/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :