বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যারিয়ার নিয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩:৫১

তরুণদের ক্যারিয়ার বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য ইয়ুথ ক্লাব অব বাংলাদেশ এবং ইয়ুথ ভিলেজ বিডির উদ্যোগে গতকাল বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত হল ‘ক্যারিয়ার পাথওয়ে ফর টুমোরো’ শীর্ষক সেমিনার। এতে অংশগ্রহণ করেছিল রাজশাহী অঞ্চলের প্রায় দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী।

এই সেমিনারের মাধ্যমে তরুণদের ক্যারিয়ার সচেতনতা, কার্যকর যোগাযোগ দক্ষতা, দক্ষতা পরিমাপ, নেতৃত্বের গুণাবলী ইত্যাদি বিষয় নিয়ে বাস্তব ধারণা প্রদান করা হয়। যাতে করে তরুণ প্রজন্ম শিক্ষা জীবন থেকেই ক্যারিয়ার সচেতন এবং ক্যারিয়ারের জন্য প্রয়োজনীয় দক্ষতা অর্জন করতে পারে।

সেমিনারে প্রধান আলোচক হিসেবে ছিলেন- দেশের শীর্ষস্থানীয় আইটি কোম্পানী স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লিমিটেড এর ডিরেক্টর মুজাহিদ আল বেরুনী সুজন।

তিনি তার দীর্ঘ ২১ বছরের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের অভিজ্ঞতা থেকে বর্তমান তরুণদের করণীয় বিষয়গুলো সম্পর্কে আলোচনা পেশ করেন।

তিনি বলেন, ‘ক্যারিয়ার শুরু হওয়ার পর ‘কাজ ভালো লাগে না’ রোগে ভুগতে না চাইলে প্রথমেই ভাবা উচিৎ কী ভাল লাগে। কী এমন কাজ যা করতে ভাল লাগে, যা করতে গিয়ে মনে হয় না কাজ করছেন। এবং দেখুন সে কাজটাকেই সিরিয়াস ক্যারিয়ার হিসেবে নেয়া যায় কিনা, বা এটা প্রচলিত কিনা। যদি তাই হয়, তাহলে এটাকেই ক্যারিয়ার গড়ার হাতিয়ার হিসেবে নিয়ে নিন। কেননা এটাই আপনাকে উন্নত ক্যারিয়ার গড়তে সহায়তা করবে। কেননা ‘যে জিনিস আপনি নিজের তাগিদে নিজে নিজে শিখবেন, সে কাজে আপনি গুরু বনে যাবেন। মনে রাখবেন- ভুলেও অপছন্দের কোন কাজকে ক্যারিয়ার হিসেবে নেবেন না, তাহলে ক্যারিয়ার বোঝা বনে যাবে।’

এছাড়াও বক্তব্য দেন, আশরাফ সিদ্দিকী নূর, ডিরেক্টর, পিক্সেল প্রাইভেট লিমিটেড, এন এম আতিকুল হক, প্রোপাইটর, ইমাজিন কম্পিউটার অ্যান্ড সল্যুশনস, শাহরিয়ার হোসেন তালুকদার, প্রক্টর, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী এবং রেজাউল করিম, এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর, ডিপার্টমেন্ট অব বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী।

বাংলাদেশের ব্যবসায়ী, শিল্পপতি ও উদ্যোক্তা সমাজের ৭৫ শতাংশই বলছে তারা তাদের প্রতিষ্ঠানে কর্ম খালি থাকা সত্ত্বেও দক্ষ জনশক্তির অভাবে নিয়োগ দিতে পারছেনা উল্লেখ করে বক্তারা বলেন- উন্নত ক্যারিয়ার গড়ার জন্য বিষয়ভিত্তিক দক্ষতা বৃদ্ধির কোন বিকল্প নেই। এবং সেই সাথে দরকার নমনীয়তা, শেখার মানসিকতা, যোগাযোগ দক্ষতা, মানসিক দক্ষতা এবং নেতৃত্বের গুণাবলী।

উল্লেখ্য যে, অংশগ্রহণকারীদের লিডারশীপ কোয়ালিটির উপর ফ্রি স্কিল এসেসম্যান্ট করা হয় এবং অংশগ্রহণকারীরা বেশ কিছু কোম্পানিতে সিভি জমা দেয়ার সুযোগ পায়।

এই আয়োজনের মিডিয়া পার্টনার ছিল ঢাকা টাইমস

(ঢাকাটাইমস/১৭ফেব্রুয়ারি/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :