প্রিয় আনল এনক্রিপটেড ভিডিও প্ল্যাটফর্ম ‘প্রিয় মিট’

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ জুলাই ২০২০, ২০:০৪

করোনাভাইরাস প্যানডেমিকের এই সময়ে মানুষের ইন্টারনেট জীবন আরও গতিশীল ও সহজবোধ্য করতে নতুন এনক্রিপটেড ভিডিও যোগাযোগ প্ল্যাটফর্ম উন্মুক্ত করেছে ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠান প্রিয়।

বর্তমানে দেশে অনেকগুলো বিদেশি প্ল্যাটফর্ম ভিডিও কনফারেন্সিং সেবা দিয়ে যাচ্ছে। ডাটা নিরাপত্তা বিষয়ে প্রশ্নবিদ্ধ এবং সমালোচিত এসব প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা প্রতিনিয়ত হুমকির সম্মুখীন হচ্ছেন। দেশের এই সমস্যাটি সমাধান করার জন্য প্রিয় নিয়ে এসেছে নিরাপদ এবং ভিডিও প্ল্যাটফর্ম ‘প্রিয় মিট’।

প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, প্রিয়'র এই ভিডিও প্ল্যাটফর্মটি আন্তর্জাতিক মাত্রায় কোনও অংশেই কম নয়। তবে, নিরাপত্তার বিষয়টি এখানে সবচে বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

‘প্রিয় মিট’ নামের এই প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করে অনির্দিষ্টসংখ্যক অংশগ্রহণকারীকে নিয়ে যতক্ষণ ইচ্ছা সংযুক্ত থাকা যাবে। প্রিয় মিটে নিচের ফিচারগুলো পাওয়া যাবে:

১. সম্পূর্ণ এনক্রিপটেড; বিধায় আপনার ভিডিও এবং ভয়েস যোগাযোগ সম্পূর্ণ নিরাপদ।

২. এর কোনও ব্যাকডোর নেই। ফলে আপনার ডাটা অন্য কেউ দেখতে পাবে না; এমনকি প্রিয় নিজেও দেখতে পাবে না; যা জুম বা অন্য প্রযুক্তিতে সম্ভব নয়।

৩. কোনও তথ্যই সার্ভারে রাখা হয় না।

৪. ঢাকায় হোস্টিং। ফলে আপনার তথ্য বাংলাদেশের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই।

৫. এইচ.ডি কোয়ালিটি ভিডিও এবং অডিও।

৬. লো ব্যান্ডউইড-এর সাথে এটা নিজেকে এডজাস্ট করে নেয়। প্রয়োজনে ভিডিও অফ করে শুধু অডিও মোডে চলে যায়।

৭. স্ক্রিন শেয়ার করা যায়।

৮. আনলিমিটেড মিটিং করা যায়; সময়ের কোনও লিমিট নেই।

৯. লিংক শেয়ার করে এক ক্লিকেই মিটিং-এ অংশ নেয়া যায়। এবং

১০. অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস এবং ওয়েবে চলে।

প্রিয় মিট (https://priyomeet.com) ওয়েসবাইটে গিয়ে প্রথমে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। প্রতিটি রুমে ইচ্ছামতো অংশগ্রহণকারীদের যুক্ত করা যাবে।

ভিডিও কমিউনিকেশনে কোনো নির্দিষ্ট ‘সেশন টাইম’ নেই, অর্থাৎ, ব্যবহারকারী প্রতিবার যতক্ষণ ইচ্ছা ভিডিওতে সংযুক্ত থাকতে পারবেন। এছাড়া গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপলের অ্যাপ স্টোর থেকে ‘প্রিয় মিট’ অ্যাপটি ডাউনলোড করেও ব্যবহার কার যাবে। সরকারি-বেসরকারি-কর্পোরেট ও ব্যাক্তিগত ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের জন্য এটি খুবই নিরাপদ একটি মাধ্যম।

বর্তমানে এটি বেটা মোডে রিলিজ করা হয়েছে। সাধারণ গ্রাহকদের জন্য এই সার্ভিসটি প্রথম ১৫ দিন ফ্রি রাখা হয়েছে।

গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য সম্পূর্ণ ফ্রি।

দেশের টিভি এবং অনলাইন মিডিয়ার সকল সাংবাদিকদের জন্য ২০২০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত এই সার্ভিসটি সম্পূর্ণ ফ্রি করা হয়েছে। সাংবাদিকেরা রিপোর্ট তৈরির জন্য যাদের সঙ্গে কথা বলতে চান, প্রিয় মিটের মাধ্যমে খুব সহজেই তাদের স্বাক্ষাৎকার নিতে পারবেন।

প্রিয় মিটের মাসিক সাবস্ক্রিপশন ফি মাত্র ১,৯৯৫/- টাকা। কারও মাধ্যমে প্রিয় মিটে নতুন কেউ জয়েন করলে তাকে ১০ শতাংশ রেফারেল ফি দেওয়া হবে।

(ঢাকাটাইমস/১৪জুলাই/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :