করোনা নিয়ে ধারণা পাল্টে দিচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়ান্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১২:৩৪ | প্রকাশিত : ২৮ জুলাই ২০২১, ১২:২৮
ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের যতগুলো ধরন বের হয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ডেল্টা ভ্যারিয়ান্ট। বর্তমানে সমগ্র বিশ্বে এই ধরনে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাই বেশি। আর এই ধরন করোনা সম্পর্কে আমাদের ধারণাকে পাল্টে দিচ্ছে। একসময় মনে করা হতো, ভ্যাকসিন নিলে হয়তো ধীরে ধীরে করোনা দূর হয়ে যাবে এবং ভ্যাকসিন নিলে করোনায় আক্রান্তের ঝুঁকি থেকে মুক্ত থাকা যাবে। কিন্তু করোনা যেভাবে ধরন পাল্টাচ্ছে তাতে নতুন শঙ্কা দেখা দিচ্ছে।

বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে করোনাবিধি শিথিল করা হয়েছে। কিন্তু মহামারি বিশেষজ্ঞরা ডেল্টা ভ্যারিয়ান্ট সম্পর্কে বারবার সতর্ক করে দিচ্ছেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডেল্টা ভ্যারিয়ান্ট মানুষকে দুর্বল করে ফেলে এটা বড় ভয় না। ভয় হচ্ছে এটা একজন থেকে আরেকজনের শরীরে খুব সহজে এবং দ্রুত ছড়ায়। বিশেষ করে যারা এখনো ভ্যাকসিন গ্রহণ করেনি তাদের মধ্যেই এই ভ্যারিয়ান্ট দ্রুত ছড়াচ্ছে।

গবেষণা বলছে, যারা পূর্ণ ডোজের ভ্যাকসিন নিয়েছেন তারাও ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্তের ঝুঁকিতে রয়েছে। অন্য যেকোনো ধরনের চেয়ে ডেল্টা ধরনে আক্রান্তের ঝুঁকি বেশি।

ব্রিটিশ মাইক্রোবায়োরোজিস্ট শ্যারন পিকক করোনভাইরাস ভ্যারিয়ান্টের জিনোম সিকোয়েন্সিং নিয়ে কাজ করেন। তিনি বলেছেন, ‘বর্তমানে বিশ্ববাসীর জন্য বড় হুমকি হচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়ান্ট।’

এখন পর্যন্ত যতগুলো ধরন বের হয়েছে তার মধ্যে ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টকে ‘ফিটেস্ট অ্যান্ড ফাস্টেস্ট’ বলে উল্লেখ করেছেন শ্যারন পিকক।

করোনাভাইরাস নিয়মিত তার রূপ বদলাচ্ছে। আসল ধরনের চেয়ে নতুন ধরন বেশি ভয়াবহ। তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডেল্টা ভ্যারিয়ান্ট রুখতে মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার মতো সকল ধরনের নিয়ম মেনে চলার পাশাপাশি ভ্যাকসিন কার্যক্রম জোরদার করতে হবে।

পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড গত শুক্রবার বলেছিল, যুক্তরাজ্যে ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্ত হয়ে ৩ হাজার ৬৯২ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তার মধ্যে ৫৮.৩ শতাংশ মানুষ ভ্যাকসিন নেননি। আর ২২.৮ শতাংশ মানুষ পূর্ণ ডোজের ভ্যাকসিন নিয়েছেন।

সিঙ্গাপুরে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে ডেল্টায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বেশি। দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, সেখানে যারা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তার মধ্যে তিন-চতুর্থাংশ মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন। তবে, ভালো খবর হচ্ছে তারা মারাত্মক অসুস্থ হননি।

ইসরাইলের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলেছেন, দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়াদের মধ্যে ৬০ শতাংশ মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন। তারপরও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের বেশিরভাগের বয়স ৬০ বছরের উপরে।

যুক্তরাষ্ট্রে নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ৮৩ শতাংশ মানুষ ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্ত হচ্ছেন।তাদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষ ভ্যাকসিন নেননি।

ইসরাইলের বেন গুরিয়ন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব পাবলিক হেলথের ডিরেক্টর নাদাভ ডেভিডোভিচ বলেছেন, ‘সকলের মধ্যে একটা অলীক ধারণা আছে যে একটা ম্যাজিক বুলেট করোনা সমস্যার সমাধান করে দেবে। করোনা আমাদেরকে একটি শিক্ষা দিচ্ছে।’

সূত্র: রয়টার্স

(ঢাকাটাইমস/২৮ জুলাই/এসইউএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :