কে এই তাজমেরী এস ইসলাম? জানুন তার পরিচয়

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ জানুয়ারি ২০২২, ১৬:৩৮

২০১৮ সালের এক নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তারের পর কারাগারে পাঠানো হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক তাজমেরী এস ইসলামকে। সজ্জন হিসেবে পরিচিত এই শিক্ষকের মুক্তি চেয়ে ইতিমধ্যে বিবৃতি দিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থী শিক্ষক ও সারাদেশের বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল অবিলম্বে তার মুক্তি চেয়েছে।

এছাড়াও তার সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিপরীত মেরুর রাজনীতি করেন এমন অনেকেই মুক্তি চেয়েছেন।

বিএনপির ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের পর দলটির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হন তাজমেরী এস ইসলাম। তার ভাই একাধিকবারের এমপি বগুড়ার হেলালুজ্জামান তালুকদার লালুও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা। তার বাবা সাবেক সংসদ সদস্য সিরাজুল হক তালুকদার।

উপদেষ্টা হলেও মাঠের কর্মসূচিতে সক্রিয় ছিলেন না তাজমেরি এস ইসলাম। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সঙ্গে বিভিন্ন সভা-সেমিনারে বক্তব্য রাখতেন। বিএনপির বুদ্ধিভিত্তিক কর্মকাণ্ডেও যুক্ত থাকতেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার সকালে অধ্যাপক তাজমেরী এস ইসলামকে নাশকতার একটি মামলায় গ্রেপ্তার করে পুলিশ। রাজধানীর উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের ১১ নম্বর রোডের একটি বাসা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

উত্তরা পশ্চিম থানার কর্তব্যরত উপপরিদর্শক (এসআই) মাহমুদ হাসান জানিয়েছেন, ২০১৮ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর মারপিটসহ দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় করা মামলায় তাজমেরী এস ইসলামের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল। সেই মামলায় বৃহস্পতিবার সকালে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে তাকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে পাঠানো হয়। শুনানি শেষে আদালত তাজমেরী এস ইসলামকে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে পাঠান।

তাজমেরী ইসলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের সাবেক শিক্ষক এবং বিএনপিপন্থী শিক্ষক সংগঠন সাদা দলের আহ্বায়ক। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের সাবেক ডিন ও রোকেয়া হলের প্রভোস্ট ছিলেন। রসায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে তিনি দায়িত্বপালন করেছিলেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এই অধ্যাপক যে মামলায় কারাগারে আছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এই মামলার প্রধান আসামি বলে জানা গেছে।

ঢাকাটাইমস/১৪জানুয়ারি/বিইউ/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :