কারাগারে কয়েদির নারীসঙ্গ কাণ্ডে বরখাস্ত মৃধা এখন মাগুরার জেলার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ২০:৩৪

কাশিমপুরে এক কয়েদিকে নারীসঙ্গ পেতে সুযোগ দেওয়ার অভিযোগে বরখাস্ত হওয়া জেলার নুর মোহাম্মদ মৃধাকে মাগুরা কারাগারের জেলার হিসেবে পদায়ন করা হয়েছে। তাকে ঢাকার কারা অধিদপ্তর থেকে মাগুরার জেলার হিসেবে পদায়ন করা হয় বলে ২৫ জানুয়ারির এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে।

২০২১ সালের ৬ জানুয়ারি কারাগারে হলমার্কের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) তুষার আহমদকে নারীর সঙ্গে সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে দেওয়ার অভিযোগে ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে কাশিমপুর-১ এর জেলার নূর মোহাম্মদ মৃধাকে প্রত্যাহার করা হয়েছিল ।

জানা গেছে, সম্প্রতি সেই মৃধার প্রত্যাহার আদেশ তুলে নিয়েছে কারা অধিদপ্তর। নতুন করে মাগুরা জেলারের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তাকে। কয়েদির নারীসঙ্গের ঘটনায় কারা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সেই কমিটির প্রতিবেদন আলোর মুখ দেখেনি। এ ব্যাপারে কারা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা একেবারে মুখে কুলুপ এটেছেন।

অধিদপ্তরের অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক আবরার হোসেনকে প্রধান করে গঠন করা কমিটি প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সঙ্গে একজন ডেপুটি জেলারসহ ৩ জনের সম্পৃক্ততা পায়। গেল বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে তাদের প্রত্যাহার করে কারা কর্তৃপক্ষ।

ওই তিনজন ছিলেন- ডেপুটি জেল সুপার মোহাম্মদ সাকলাইন, সার্জেন্ট আব্দুল বারী ও সহকারী প্রধান কারারক্ষী খলিলুর রহমান। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নূর মোহাম্মদকেও প্রত্যাহার করে ঢাকায় কারা অধিদপ্তরে সংযুক্ত করা হয়েছিল।

এদিকে একই প্রজ্ঞাপনে মাগুরা জেলা কারাগারের অনুকূলে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এ সংযুক্ত রীতেশ চাকমাকে স্থায়ীভাবে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এ জেলার হিসেবে পাঠানো হয়েছে।

গাজীপুর কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর ভেতরে হলমার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীরের শ্যালক তুষার (জিএম) একজন নারীর সঙ্গে একান্তে সময় কাটান। এতে সহযোগিতা করার অভিযোগ উঠে ওই কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার রত্না রায়সহ বেশ কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।

গত বছরের ২২ জানুয়ারি ঘটনাটি প্রকাশ পায়। পরে ওই ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ গণমাধ্যমে প্রকাশ হলে নড়েচড়ে বসে কারা কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনার পরবর্তীতে দুদফায় সিনিয়র জেল সুপার রত্না রায়সহ পাঁচজনকে প্রত্যাহার করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/২৭জানুয়ারি/এএ/আইএম/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :