ডা. মুরাদের বিরুদ্ধে স্ত্রীকে প্রাণনাশের হুমকির সত্যতা পায়নি পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১০ আগস্ট ২০২২, ২২:২৭

তথ্য প্রতিমন্ত্রীর পদ হারানো ডা. মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে স্ত্রীকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগের সত্যতা পায়নি পুলিশ। স্ত্রী ডা. জাহানারা এহসানের করা সাধারণ ডায়েরির (জিডি) তদন্ত শেষে জমা দেওয়া প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে। গেল মাসে ধানমন্ডি থানার সাব-ইন্সপেক্টর রাজীব হাসান আদালতে প্রতিবেদন জমা দেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ডা. মুরাদের বিরুদ্ধে স্ত্রী জাহানারা এহসান প্রাণনাশের হুমকির যে জিডি করেছিলেন তার সপক্ষে কোনো প্রমাণ পায়নি পুলিশ। ঘটনার দিন বাক-বিতণ্ডা হয়েছিল, তবে সেটা ছিল পারিবারিক ঝগড়া-ফ্যাসাদ।

নারীর প্রতি অবমাননাকর বক্তব্যের জেরে বিপুল সমালোচনার মুখে মন্ত্রিত্ব ও দলীয় পদ হারান জামালপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য হাসান মুরাদ। এরপর কদিন আড়ালে থেকে রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে দেশ ছেড়েছিলেন। কিন্তু কোথাও ঠাঁই হয়নি তার। ফিরে আসেন দেশে।

এর কিছু দিন পর স্ত্রীর সঙ্গে বিবাদে জড়ান। আর তাতে এই সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রাণনাশের হুমকি, গালাগালি ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন স্ত্রী ডা. জাহানারা এহসান। এরপর নিজেকে গুটিয়ে রাখেন মুরাদ।

হঠাৎ গত ১৩ মে আবার খবরে আসেন সিলিং ফ্যান পড়ে মাথায় আঘাত পেলে। সাবেক প্রতিমন্ত্রীর কেটে যাওয়া কপালে তিনটি সেলাই দেওয়া হয়। এরপর নিজ বাড়িতে চিকিৎসকের পর্যবেক্ষণে ছিলেন এবং সুস্থ হন। যোগ দেন সংসদ অধিবেশনেও।

স্ত্রীর সঙ্গে যেভাবে বিবাদ শুরু!

৬ জানুয়ারি জাতীয় জরুরি সহায়তা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করে মুরাদের বিরুদ্ধে তার স্ত্রী জাহানারা এহসান পুলিশি সহায়তা চান। এরপরই ধানমন্ডি থানার ১০ পুলিশ সদস্য ছুটে যান মুরাদের ধানমন্ডির বাড়িতে। ততক্ষণে মুরাদ হাসান বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান।

একই দিন সন্ধ্যায় স্বামীর বিরুদ্ধে মানসিক, শারীরিক নির্যাতন এবং প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ এনে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ডা. জাহানারা এহসান। জিডি নম্বর ৩৩৪, ৬ জানুয়ারি ২০২২। এর দুই দিন পর জিডি তদন্তের অনুমতি চেয়ে আদালতে আবেদন করে পুলিশ। ৯ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম মো. মামুনুর রশিদ জিডি তদন্তের অনুমতি দেন।

জিডিতে জাহানারা এহসান উল্লেখ করেছিলেন, মুরাদ হাসান যেভাবে স্ত্রীকে হুমকি দিয়েছেন তাতে ভবিষ্যতে তার কাছ থেকে গুরুতর হামলার আশঙ্কা রয়েছে। ১৯ বছর আগে মুরাদের সঙ্গে তার বিয়ে হয় এবং তাদের সংসারে দুই সন্তান রয়েছে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে কারণে-অকারণে তাকে ও তার সন্তানদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছেন তার স্বামী। মুরাদ তাকে ও সন্তানদের গালিগালাজ এবং মারধরে উদ্যত হলে তিনি ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে পুলিশের সহযোগিতা চান।

স্ত্রীর জিডির পর ৮ জানুয়ারি মুরাদ হাসানের লাইসেন্স করা দুটি অস্ত্র এবং তার স্ত্রীর লাইসেন্স করা একটি অস্ত্র নিরাপত্তাজনিত কারণে নিজেদের জিম্মায় নেয় থানার পুলিশ। এখন পর্যন্ত অস্ত্রগুলো থানা হেফাজতে রয়েছে। এ ছাড়া জিডির পর আর কোনো ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হননি মুরাদের স্ত্রী-সন্তানরা।

তদন্ত কর্মকর্তা ও থানা পুলিশ যা বলছে

জিডির তদন্ত কর্মকর্তা রাজীব হাসান ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘বেশ কয়েক দিন আগে তদন্ত শেষ করে দিয়েছি। বাদিনীকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছিলেন বলে যে অভিযোগ করা হয়েছিল সেটা প্রমাণ হয়নি। সেভাবেই আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে।’

ধানমন্ডি থানার পুলিশ বলছে, পারিবারিক বিষয় তো, সেভাবেই শেষ করা হয়েছে। জিডিতে যে ধরনের অভিযোগ করা হয়েছিল তার পক্ষে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাই তদন্ত পেন্ডিং না রেখে যা পাওয়া গেছে সেভাবে আদালতে প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে। বাদিনী জিডিতে বলেছিলেন, তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে, কিন্তু সেটা প্রমাণিত হয়নি। অধর্তব্য অপরাধ হওয়ায় এটা মামলা হওয়ারও সুযোগ নেয়।

প্রতিবেদনে যা বলা হয়েছে

আদালতে জমা দেওয়া প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘটনার দিন যা হয়েছে সেটা পারিবারিক ঝগড়া-ফ্যাসাদ ছিল। বাগবিতণ্ডা হয়েছে ঠিকই, তবে প্রাণনাশের বা ক্ষতি করা হবে এই মর্মে কোনো হুমকি-ধমকি দেওয়া হয়নি। এক্ষেত্রে যার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছিল, সেই মুরাদ হাসান পুলিশের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। তিনি তার বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন।

ধানমন্ডির বাড়িতে আসেন না মুরাদ

রাজধানীর ধানমন্ডির ১৫ নম্বরের (সাবেক ২৮ নম্বর) যে ফ্ল্যাটে মুরাদ হাসান থাকতেন, তার বাজার মূল্য প্রায় চার কোটি টাকা। এক হাজার ৮০০ বর্গফুটের ফ্ল্যাটটিতে একসময় সপরিবারে বসবাস করতেন তিনি। তবে স্ত্রীকে হুমকি দিয়ে ধানমন্ডির বাড়ি ছাড়ার পর তিনি আর সেখানে যাননি বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে। একই ভবনের দ্বিতীয় তলায় তার আরও একটি ফ্লাট আছে, যা তিনি নিজের অফিস হিসেবে ব্যবহার করতেন। স্ত্রী জাহানারা এহসান বর্তমানে তার সন্তানদের নিয়ে ধানমন্ডিতেই থাকেন। তবে হাসান মুরাদ তাদের ভরণ-পোষণ দেন।

এখন কোথায় আছেন মুরাদ হাসান

জানা গেছে, মুরাদ হাসান এখন তার নির্বাচনী এলাকা জামালপুরের সরিষাবাড়ীর নিজ গ্রামে বেশি থাকেন। সেখানে মাঝেমধ্যে রোগীও দেখেন। স্থানীয় আওয়ামী লীগের সব পদ হারালেও তার অনুসারীদের নিয়ে ঘরোয়া অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছেন।

বুধবার মুরাদের এপিএস জাহিদ নাঈম ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘তিনি (মুরাদ হাসান) এখন গ্রামের বাড়িতে আছেন। স্থানীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছেন। শেখ কামাল ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিনে সভা করলেন। ১৫ আগস্ট বড় পরিসরে শোকসভা করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।’

স্ত্রী জাহানারা এহসানের সঙ্গে বিরোধ মীমাংসা হয়েছে কি না জানতে চাইলে নাঈম বলেন, ‘জি, সব এখন ঠিক হয়ে গেছে।’ মুরাদ হাসান কি ধানমন্ডির বাসায় যান জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সেখানে ম্যাডামই থাকেন। স্যার তো এখন এলাকায় থাকেন।’

সব সময় বিতর্কিত মুরাদ হাসান

মুরাদ হাসান বিএনপির চেয়ারপারর্সনের নাতনি জাইমা রহমানকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য ও চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে ফোনে ধর্ষণের হুমকি দেওয়ার অডিও ক্লিপ ছড়িয়ে পড়ার পর বিপুল সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। পরে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে গত বছরের ৭ ডিসেম্বর তথ্য প্রতিমন্ত্রীর পদ ছাড়েন তিনি। এরপর তাকে জামালপুর আওয়ামী লীগের পদ থেকেও অব্যাহতি দেওয়া হয়।

বিতর্কের মুখে মুরাদ হাসান গত বছরের ১০ ডিসেম্বর কানাডার উদ্দেশে দেশত্যাগ করেন। তবে কানাডার বর্ডার সার্ভিসেস এজেন্সি তাকে সে দেশে প্রবেশ করতে দেয়নি। এরপর কানাডা থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যান মুরাদ। সেখানেও প্রবেশ করতে ব্যর্থ হয়ে ১২ ডিসেম্বর ঢাকায় ফিরে আসেন সমালোচিত এই সংসদ সদস্য।

(ঢাকাটাইমস/১১আগস্ট/এসএস/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

অপরাধ ও দুর্নীতি এর সর্বশেষ

সিউল মার্ট, কালার মি ও সুন্দরা বিউটিকে আড়াই লাখ টাকা জরিমানা

গাজীপুরে ৬ হাজার পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

চবিতে ছাত্রলীগ কর্মীর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে না যাওয়ায় সাংবাদিককে ‘মারধর’

বিমানের আরো চার সিবিএ নেতাকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

স্ত্রীকে হত্যার ১২ ঘণ্টার মধ্যে প্রেমিকাসহ গ্রেপ্তার স্বামী

অটোরিকশা ছিনতাইয়ের জন্য হত্যা করা হয় ডোমারের স্কুলছাত্র আরিফকে, গ্রেপ্তার ২

কোথায় আছেন ক্যাসিনো সেলিম, দিন কাটছে কীভাবে?

ভবন বেয়ে ওঠা চোর 'স্পাইডারম্যান' বিল্লাল সহযোগীসহ গ্রেপ্তার

উত্তরা ফাইন্যান্সের চেয়ারম্যানসহ ৯ কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের সাবেক ডিজি ও পরিচালকের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :