ফের কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৫৯

সোমবার কানাডায় ৪৩তম সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনের ফল গণনা শুরু হতেই জাস্টিন ট্রুডোর লিবারেল পার্টি এগিয়ে রয়েছে। তবে শেষ পর্যন্ত যদি এক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকে তাহলে ট্রুডোকে সংখ্যালঘু সরকার গঠন করতে হবে। জাস্টিন ট্রুডোর দলের জয়ের বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দেশটির সংবাদ সংস্থা সিবিসি।

হাতে ব্যালট গণনার কারণে ফল প্রকাশে কিছুটা সময় লাগতে পারে। তবে এরই মধ্যে নির্বাচনে বিজয়ী হিসেবে ট্রুডোর দলকেই এগিয়ে রেখেছে সকল আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

ভোটগ্রহণ পর্বের শুরুতেই পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে ট্রুডোর পিছিয়ে পড়ার আভাস স্পষ্ট হলেও দিনশেষে প্রতীয়মান হয় যে, পার্লামেন্টের অধিকাংশ আসনের নিয়ন্ত্রণ নিতে যাচ্ছে তার দল লিবারেল পার্টি অব কানাডা। তবে সংখ্যালঘু সরকার গঠিত হলে সুবিধা পাবে বামপন্থী রাজনৈতিক দল নিউ ডেমোক্র্যাটিক পার্টি (এনডিপি)। সেক্ষেত্রে কিংমেকারে পরিণত হবেন দলটির নেতা জগমিত সিং।

বিবিসি জানিয়েছে, ক্ষমতায় ফিরলেও একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিতে ব্যর্থ হলে পার্লামেন্টের ওপর নিয়ন্ত্রণ কমে যাবে ট্রুডো-র। সেক্ষেত্রে বিভিন্ন আইন পাস করতে অন্য দলগুলোর শরণাপন্ন হতে হবে তাকে।

পাঁচ সপ্তাহের নির্বাচনি প্রচারণা শেষে সোমবার হাউস অব কমন্সের ৩৩৮ আসনে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়। এককভাবে সরকার গঠনে প্রয়োজন ১৭২টি আসন।

১০টি প্রদেশ নিয়ে গঠিত কানাডা আয়তনের দিক থেকে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ। প্রায় চার কোটি মানুষের দেশটিতে এবারের নির্বাচনে অংশ মোট ছয়টি রাজনৈতিক দল অংশ নিয়েছে। দলগুলো হচ্ছে লিবারেল, কনজারভেটিভ, নিউ ডেমোক্র্যাটিক, ব্লক কুবেকুয়া, গ্রিন ও পিপলস পার্টি অব কানাডা।

প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী এবং লিবারেল পার্টির সাবেক নেতা পিয়েরে ট্যুডোর সন্তান জাস্টিন ট্রুডো। বাবার দেখানো পথেই এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

ঢাকা টাইমস/২২অক্টোবর/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :