শেরেবাংলানগরের ডাকাতির মাল রামপুরায় উদ্ধার, আটক ২

অনলাইন ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ০৬ জুন ২০২০, ১৯:১৭

রাজধানীর শেরেবাংলানগর এলাকায় হওয়া ডাকাতির মালামাল রামপুরা থেকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-২। এ ঘটনায় ডাকাত চক্রের প্রধান দুইজনকে আটক করেছে সংস্থাটি। আটককৃতরা হলেন-মো. মিরাজ কাজী ওরফে মিরাজ এবং ইসমাইল সরদার।

আজ শনিবার বিকালে র‌্যাব-২ এর দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। তাদের কাছ থেকে একটি পিকআপভ্যান, দুইটি খাট, একটি ওয়্যারড্রব, একটি ফ্রিজ, একটি টিভিসহ ডাকাতি হওয়া মালামাল উদ্ধার করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মোছা. শিউলী আক্তার নামের এক নারীর বাসা থেকে গত ২৬ মে বিকাল তিনটার দিকে পিকআপ ভাড়া করে গাজীপুরে তার বাবার বাসা থেকে আগারগাঁওয়ের বিএনপি বাজার বস্তিতে আসছিল। তখন হঠাৎ পিকআপ থামিয়ে আসামি মিরাজ কাজী তার গলায় ছুরি ঠেকান ও ইসমাইল সরদার চাপাতি দেখান। আর অপর আসামি বিল্লাল তার গলার চেইন নিয়ে নেন। অন্যান্য পাঁচজন আগে থেকেই ঘটনাস্থলের পাশে ওৎপেতে থাকেন। পিকআপ থামানোর সাথে সাথে দ্রুত পিকআপের সামনে এসে দাঁড়িয়ে তাকে পিকআপ থেকে নেমে যেতে বলে।

এ সময় শিউলি অস্ত্রের মুখে ভয় পেয়ে পিকআপ থেকে নেমে যান। ডাকাতদল তাকে জোর করে পিক্যাপ থেকে নামিয়ে দিয়ে তার সাংসারিক মালামালসহ পিকআপটি নিয়ে চলে যায়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ৩০ মে শিউলি তার মালামাল উদ্ধারের জন্য র‌্যাব-২ এর অধিনায়কের কাছে একটি অভিযোগ করে। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাবের গোয়েন্দা দল একটি পিকআপ ও ডাকাতি করা মালামালসহ চক্রের প্রধানদের একজন মিরাজ কাজীকে শেরেবাংলানগরের বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণের সামনে থেকে আটক করে।

র‌্যাবের পাঠানো ওই সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আটক মিরাজ র‌্যাবকে জানায়, ডাকাতি করা মালামাল বর্তমানে ইসমাইল সরদারের কাছে আছে। পরবর্তীতে ইসমাইল সরদার কোথায় আছে জানতে চাইলে মিরাজ কাজী জানায় যে, ইসমাইল সরদার পূর্ব রামপুরা, কুঞ্জবন রোডে মালামাল বিক্রির জন্য পিকআপ নিয়ে অবস্থান করছে। র‌্যাবের গোয়েন্দা দল পূর্ব রামপুরা, কুঞ্জবনের সাকুরা ভবনের সামনে থেকে একটি মিনি পিকআপ যাহার রেজিস্টেশন নম্বর-ঢাকা মেট্টো-ড-১১-৩৫৮৪ এবং ডাকাতি হওয়া মালামালসহ ইসমাইল সরদারকে আটক করে।

আটককৃত ইসমাঈলকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে তাদের চক্রের অন্যান্য সদস্যদের নাম ঠিকানা বলে। তারা সবাই একাধিক মামলার পলাতক ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ভুক্ত আসামি বলে জানায়। পলাতক আরো ছয়জনকে আটকের জন্য র‌্যাবের তৎপরতা রয়েছে।

এ ঘটনায় আটক মিরাজ কাজী, ইসমাইল সরদার এবং পলাতক মো. বিল্লাল ওরফে বেলাল হোসেন মাহমুদুন নবী ওরফে রুপম সোহাগ ওরফে দাতলা সোহাগ, রেজাউল করিম, কাইয়ুম এবং আসলামের বিরুদ্ধে শিউলি আক্তার বাদী হয়ে শেরেবাংলানগর থানায় একটি মামলা করেছে ।

আটক মো. মিরাজ কাজী ওরফে মিরাজের বাড়ি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানি থানার শিবগাতি গ্রামে। আর ইসমাইল সরদারের বাড়ি শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা থানার আদাশন গ্রামে।

ঢাকাটাইমস/০৬ জুন/এএ/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :