বাল্যবিয়ে, অতপর নববধূর আত্মহত্যা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:৩৭

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার টাংগাব জামির হাজির বালিকা দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির ছাত্রীর গত এক বছর আগে মুঠোফোনে বিয়ে হয়। বিয়ের পর টাংগাব গ্রামের প্রবাসী স্বামী আশরাফুল ইসলামের বাড়িতে বসবাস করতেন তিনি। এ অবস্থায় পারিবারিক কলহের জের ধরে শনিবার গভীর রাতে স্বামীর বাড়িতে নিজের রুমে সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই নববধূ।

নিহতের নাম আছিয়া খাতুন (১৬)। তিনি টাংগাব গ্রামের সাহিদের মেয়ে। রবিবার সকালে রুমের দরজা বন্ধ পেয়ে শ^শুরবাড়ির লোকজন জানালা দিয়ে দেখতে পায় আছিয়া ফ্যানের সাথে ঝুলে আছে।

জানা যায়, গত এক বছর আগে একই গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে মালদ্বীপ প্রবাসী আশরাফুল ইসলামের এর সাথে কিশোরী আছিয়া খাতুনের মুঠোফোনে বিয়ে হয়। স্বামী আশরাফুল প্রবাসে থাকলেও আছিয়া খাতুন স্বামীর বাড়িতেই থাকত।

এলাকাবাসী ও পাগলা থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রবিবার সকাল ৭টা পর্যন্ত আছিয়া খাতুনের রুমের দরজা বন্ধ পেয়ে শ^শুরবাড়ির লোকজন জানালা খুলে দেখে অছিয়া খাতুন সিলিং ফ্যানের গলায় ওড়না পেঁিচয়ে আত্মহত্যা করেছে।

আছিয়ার পরিবারের লোকজন অভিযোগ করে বলেন, বিয়ে হওয়া থেকেই স্বামীর সাথে আছিয়ার দেখা না হলেও স্বামীর বাড়ির লোকজন কারণে-অকারণে আছিয়াকে মানসিক যন্ত্রণা দিত। সামান্য বিষয় নিয়েই সংসারে কলহ সৃষ্টি করত।

পাগলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীনুজ্জামান খান বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(ঢাকাটাইমস/২০সেপ্টেম্বর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :