বিএনপির ‘অপকৌশলে’ ভোটার কম: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২০, ১৪:৪২ | প্রকাশিত : ২১ অক্টোবর ২০২০, ১৪:১৪

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া নির্বাচনগুলোতে ভোটারের কম উপস্থিতির জন্য বিএনপির অপকৌশল দেখছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। কাদের বলেন, ‘তারা (বিএনপি) এমন পরিস্থিতি তৈরি করে যে তাদের ভোটাররাও কেন্দ্রে আসে না। ভোটার উপস্থিতি কম হওয়ার জন্য বিএনপির অপকৌশল কাজ করে।’

বুধবার সকালে তার সরকারি বাসভবনে এক ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন কাদের।

গত শনিবার নওগাঁ-৬ ও ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে নওগাঁ-৬ আসনে ভোটের হার কিছুটা সন্তোষজনক হলেও ঢাকা-৫ আসনের ভোটের হার ছিল অনেক কম। ঢাকার এই আসনটিতে চার লাখ ৭১ হাজার ৭১ ভোটের মধ্যে কাস্ট হয়েছে ৪৯ হাজার ১৪১ ভোট। ভোট পড়েছে মাত্র ১০ দশমিক ৪৩ শতাংশ। অন্যদিকে নওগাঁ-৬ আসনে তিন লাখ ছয় হাজার ৭২৫ ভোটের মধ্যে ৩৬ দশমিক ৪ শতাংশ। ভোটের হারের দিক থেকে নওগাঁ-৬ আসনে কিছুটা সন্তোষজনক হলেও করোনাকালে ব্যালট পেপারে অনুষ্ঠিত যেকোনও আসনের তুলনায় এই হার কম।

এছাড়া গত মঙ্গলবার দুইশোর বেশি এলাকায় স্থানীয় সরকার ব্যবস্থার উপজেলা এবং ইউনিয়ন পরিষদের যে নির্বাচন হয়েছে, সেখানেও ভোটার উপস্থিতি উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় অনেক কম ছিল। এসব নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি খুব একটা দেখা যায়নি। কেন্দ্রে ভোটারদের এমন উপস্থিতির জন্য বিএনপিকে দায়ী করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নির্বাচনে বিএনপি উদ্দেশ্যমূলক নিষ্ক্রিয়তা দেখায়। তারা এমন পরিস্থিতি তৈরি করে যে তাদের ভোটাররাও কেন্দ্রে আসে না। আর ভোটার উপস্থিতি কম হওয়ার জন্য বিএনপির অপকৌশল কাজ করে।

‘ভরাডুবি বুঝতে পেরে এসব অপকৌশল করে নির্বাচন ব্যবস্থাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে তারা (বিএনপি) নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করার অপকৌশল করে। জনগণ তাদের এমন অপকৌশল বুঝে ফেলেছে।’-যোগ করেন কাদের।

দেশে নির্বাচনী পরিবেশ নেই বলে বিএনপি নেতারা যে অভিযোগ করছেন সে বিষয়েও কথা বলেন সেতুমন্ত্রী। বিএনপির সময়ের কথা স্মরণ করে দিয়ে কাদের বলেন, ‘সেসময়ে নির্বাচন মানেই ছিল সংঘাত আর প্রাণহানি। স্থানীয় নির্বাচনগুলোতে ঘটেছে অসংখ্য জীবনহানির মত ঘটনা। আর এখন দেশের কোথাও নেই নির্বাচনী সংঘাত।’

ব্রিফিংয়ে সম্প্রতি ঘোষিত সহযোগী সংগঠনগুলোর কমিটি নিয়েও কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। কাদের বলেন, ‘সহযোগী সংগঠনগুলোর ঘোষিত কমিটির বিষয়ে যেকোনো অভিযোগ-আপত্তি দলীয় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আইনি কাঠামোর মধ্যে সমাধানের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’

কমিটির কোনো বিষয়ে অভিযোগ থাকলে প্রতীকার পাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে সংগঠনের গঠনতন্ত্রের কাঠামোর আওতায় উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, নেতাকর্মীরা গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এ সংক্রান্ত অভিযোগ ট্রাইব্যুনালে দিতে পারবেন। ট্রাইব্যুনাল অভিযোগ যাচাই-বাছাই করে নিষ্পত্তি করবে।

শীঘ্রই জেলা ও মহানগর কমিটি ঘোষণা করা হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এখন যাচাই বাছাই চলছে।

ঢাকাটাইমস/২১অক্টোবর/টিএ/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :